অ্যান্টিবায়োটিক অপব্যবহার রোধে সতর্কতা

আগের সংবাদ

শীতে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ান

পরের সংবাদ

মধ্যযুগীয় কায়দায় দুই ভাই বোন কে নির্যাতন

প্রকাশিত: নভেম্বর ২৫, ২০২০ , ১০:০০ অপরাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ২৫, ২০২০ , ১০:২২ অপরাহ্ণ

দৌলতখানে স্কুল পড়ুয়া দুই ভাই বোনকে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। বুধবার (২৫ নভেম্বর) সকাল ৭ টা থেকে ৮ টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত চলে এ নির্যাতন। সকাল ৯টায় দৌলতখান থানায় নির্যাতিত দুই শিক্ষার্থীর মা লিখিত অভিযোগ দাখিল করলেও কোন প্রতিকার পায়নি তারা।

অভিযোগের সূত্রে জানাযায় দৌলতখান পৌরসভা ৮ নং ওয়ার্ডের কবির (৪০) চট্রগ্রামে দিন মুজুরের কাজ করে। বাড়িতে ৩ সন্তান তাদের মায়ের সাথে থাকে। বড় ছেলে ফজলে রাব্বি (১৫) ছাকিনা আদর্শ একাডেমি তে ৮ম শ্রেনী ও তার বোন নুপুর (১৩) হাজিপুর মাদ্রাসায় ৬ষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থী। নির্যাতন থেকে বাদ যায় নি তাদের ৭ বছরের ছোট বোনও।

মঙ্গলবার তাদের প্রতিবেশী শুক্কুর ফরাজির দুটি হাঁস পাওয়া যাচ্ছিলোনা। বুধবার সকালে ফজলে রাব্বির মা রাশিদা কে উদ্দেশ্য করে গালি গালাজ করতে থাকে শুক্কুর মাঝি ও তার সন্তানেরা। পড়ে রাশিদা মক্তব থেকে তার ছেলে রাব্বি কে ডেকে আনে হাসঁ সম্পর্কে জানতে চিইলে সে কিছু জানেনা বলে জানায়।

সে সময় শুক্কুর মাঝির দুই ছেলে জসিম ও আলাউদ্দিন মিলে টেনে হিছরে ফজলে রাব্বিকে মারতে মারতে তাদের ঘরের দিকে নিতে থাকে। ভাই কে বাচাতে বাঁধা দিলে ছোট বোন নুপুরকেও লাঠি দিয়ে আঘাত করতে থাকে তারা। এসময় ফজলে রাব্বির ৭ বছরের ছোট বোনকে পাশ্ববর্তী রাস্তায় ছুড়ে ফেরে তারা ।
পরে শুক্কুর মাঝির ঘরে নিয়ে আটকে রেখে ফজলে রাব্বির হাত পায়ের নখ ওঠানোর চেষ্টা করে জসিম ও আলাউদ্দিন। পরে সকালে দৌলতখান থানায় দুই শিক্ষির্থীর মা রাশিদা লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন।

দৌলতখান থানার ডিউটি অফিসার এএসআই আহসান আলী অভিযোগ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত শিশু দুইটি দৌলতখান উপজেলা স্বাস্থ্য কম্লেক্সে ভর্তি রয়েছে। দুই স্কুল শিক্ষার্থীকে নির্যাতনের বিরুদ্ধে কোন ধরনের পুলিশি তৎপরতা না থাকায় ক্ষোভপ্রকাশ করেছে স্থানীয়রা।

ডিসি

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়