টিকার আগমনী বার্তায় আশায় বুক বাঁধছে বিশ্ব

আগের সংবাদ

ক্রাইম পেট্রল দেখে হত্যার কৌশল রপ্ত

পরের সংবাদ

প্রতিমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন দুলাল

প্রকাশিত: নভেম্বর ২৫, ২০২০ , ৯:৩১ পূর্বাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ২৫, ২০২০ , ৯:৩১ পূর্বাহ্ণ

আমার জন্য দোয়া করবেন নতুন প্রতিমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়ে গণমাধ্যমকে একথা বলেন জামালপুর-২ আসনের সাংসদ মো. ফরিদুল হক খান দুলাল। গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টায় বঙ্গভবনের দরবার হলে নতুন প্রতিমন্ত্রীর শপথ পড়ান রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। প্রতিমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেয়ার পর ফরিদুল হক পৃথকভাবে গোপনীয়তার শপথও নেন। শপথ অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম।

সরকারের কোনো মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী শপথ নিলে সেই অনুষ্ঠানে সরকারপ্রধানের উপস্থিত থাকার রেওয়াজ রয়েছে। তবে গতকালের শপথ অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ছিলেন না। করোনা ভাইরাস মহামারির কারণে এই শপথ অনুষ্ঠান হয়েছে সংক্ষিপ্ত পরিসরে। দরবার হলের এই আয়োজনে অংশগ্রহণকারীদের বসার জন্য চেয়ার ছিল সাকুল্যে ২৭টি। মুক্তিযুদ্ধবিষয়কমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল, তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ ছাড়াও উচ্চপদস্থ কয়েকজন কর্মকর্তা ছিলেন অনুষ্ঠানে।

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্বে যে ফরিদুল হক খান দুলালই আসছেন, সেই গুঞ্জন সোমবার থেকেই ছিল। গত ১৩ জুন রাতে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আব্দুল্লাহ। পরে কোভিড-১৯ পরীক্ষায় তার ফলাফল পজেটিভ আসে। গতকাল সচিবালয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর বিষয়টি নিশ্চিত করেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। এ সময় আবারো মন্ত্রিপরিষদের রদবদলের গুঞ্জনের মাঝেই খুব সহসা দপ্তর পরিবর্তন হচ্ছে না মন্তব্য করে তিনি বলেন, আমাদের ভালো একজন লোক, জামালপুরের ইসলামপুরের সাংসদ ফরিদুল হক খান দুলালকে ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী এখন শূন্য পদটা পূরণ করছেন। অন্য কোনো জায়গায় ঠিক এ সময় পরিবর্তনটা তাড়াতাড়ি হচ্ছে না।

এদিকে ফরিদুল হক খান প্রতিমন্ত্রী হিসেবে যুক্ত হওয়ায় প্রতিমন্ত্রী দাঁড়িয়েছেন ১৯ জনে। ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভ করে আওয়ামী লীগ। এরপর ২০১৯ সালের ৭ জানুয়ারি টানা তৃতীয়বারের মতো সরকার গঠন করে দলটি। ৪৬ সদস্যের ওই মন্ত্রিসভায় ২৪ মন্ত্রী, ১৯ প্রতিমন্ত্রী ও তিনজন উপমন্ত্রী রয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অধীনে ছয়টি মন্ত্রণালয় রাখা হয়। এরপর ছোট আকারে দুই দফা পরিবর্তন আনা হয় মন্ত্রিসভায়। বর্তমানে মন্ত্রিসভায় মন্ত্রী ২৫ জন, প্রতিমন্ত্রী ১৯ জন ও উপমন্ত্রী রয়েছেন তিনজন।

উল্লেখ্য, ৬৪ বছর বয়সি ফরিদুল হক জামালপুর-২ (ইসলামপুর) আসন থেকে এ নিয়ে তৃতীয়বার সংসদে প্রতিনিধিত্ব করছেন। ২০০৮ সালে নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জয়ী হয়ে প্রথমবার তিনি সংসদে যান। সেই সংসদে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সদস্য করা হয় তাকে। ১৯৫৬ সালের ১ ফেব্রুয়ারি জন্ম নেয়া ফরিদুল হক খান দুলাল এইএচএসি পর্যন্ত লেখাপড়া করে ব্যবসার পাশাপাশি আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে যুক্ত হন। দুই কন্যা সন্তানের জনক দুলাল মূলত পাট ব্যবসায়ী। বর্তমান একাদশ সংসদে তিনি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটিতে সদস্য হিসেবে রয়েছেন।

এসএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়