করোনার দ্বিতীয় ঢেউ : জরুরি করণীয়

আগের সংবাদ

গ্যাঁড়াকলে করদাতারা!

পরের সংবাদ

অনন্তলোকে মুনীরুজ্জামান

প্রকাশিত: নভেম্বর ২৪, ২০২০ , ১১:২৬ অপরাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ২৪, ২০২০ , ১১:২৬ অপরাহ্ণ

খ্যাতিমান সাংবাদিক ও দৈনিক সংবাদের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক, রাজনৈতিক বিশ্লেষক খন্দকার মুনীরুজ্জামান অবশেষে চলে গেলেন। গতকাল মঙ্গলবার সকালে মারা গেছেন তিনি। মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৭২ বছর। তার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শোক জানিয়েছেন সম্পাদকদের সংগঠন সম্পাদক পরিষদ। ভোরের কাগজও তার মৃত্যুতে শোকাহত এবং তার পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করছে। পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, খন্দকার মুনীরুজ্জামান সম্প্রতি জ্বরে আক্রান্ত হন। এরপর তার করোনা পরীক্ষা করা হয়। ফল পজিটিভ আসার পর তিনি শান্তিনগরের নিজ বাসায় চিকিৎসাধীন ছিলেন। গত ৩১ অক্টোবর শারীরিক অবস্থার কিছুটা অবনতি হলে রাতেই তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে হাসপাতালেই তার চিকিৎসা চলছিল। তিনি করোনা থেকে সেরেও উঠেছিলেন। কিন্তু করোনা-পরবর্তী নানা জটিলতায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থাতেই তিনি মারা গেলেন। খন্দকার মুনীরুজ্জামান ১৯৪৮ সালের ১২ মার্চ ঢাকায় জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নের সময় সাংবাদিকতায় যুক্ত হন। একই সময়ে তিনি বাম ঘরানার রাজনীতিতে যুক্ত হন। তিনি বিভিন্ন পত্রিকায় সাংবাদিক হিসেবে দায়িত্বপালন করেছেন। মুনীরুজ্জমান ১৯৭০ সালে সিপিবির মুখপত্র সাপ্তাহিক একতায় সাংবাদিকতা শুরু করেন। এরপর দীর্ঘ সাংবাদিকতা জীবনে তিনি একজন প্রতিষ্ঠান হিসেবে পরিচিতি পেয়েছেন। ২০০৩ সাল থেকে সংবাদের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক হিসেবে দায়িত্বপালন করে আসছিলেন খন্দকার মুনীরুজ্জামান। ২০১৯ সালে তিনি প্রেস কাউন্সিলের সদস্য হিসেবে মনোনীত হন। তিনি দীর্ঘদিন কমিউনিস্ট পার্টির ঢাকা জেলা কমিটির সম্পাদক ছিলেন। তিনি সাংবাদিকতা ছাড়াও কবিতা, গল্প, প্রবন্ধ, চিত্র সমালোচনা ও নিয়মিত কলাম লিখতেন। এছাড়া রাজনৈতিক বিশ্লেষক হিসেবে যে ক’জন লেখক ও বক্তা আলো ছড়িয়েছেন, মুনীরুজ্জামান ছিলেন তাদের অন্যতম। একদিকে তিনি ছিলেন প্রগতিশীল, অসাম্প্রদায়িক, উদার ও উন্নত মনমানসিকতার অধিকারী, অন্যদিকে তার কর্মের মধ্য দিয়ে ঋদ্ধ হয়েছে দেশের সাংবাদিকতা অঙ্গনে। ব্যক্তিজীবনেও নিরহংকার ও অমায়িক মানুষ ছিলেন। তিনি সুন্দর ও নান্দনিক জীবনযাপন করতেন। ভোরের কাগজ পরিবার তার আত্মার শান্তি কামনা করছে। সাংবাদিকতায় অবদানের জন্য খন্দকার মুনীরুজ্জামান স্মরণীয় হয়ে থাকবেন আজীবন।

ডিসি

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়