করোনায় মৃত্যু ২৮, শনাক্ত ২৪১৯

আগের সংবাদ

নিউজ ফ্ল্যাশ

পরের সংবাদ

শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ‘এসাইনমেন্টের ফি’ আদায়ের তীব্র নিন্দা

প্রকাশিত: নভেম্বর ২৩, ২০২০ , ৩:৫৪ অপরাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ২৩, ২০২০ , ৩:৫৫ অপরাহ্ণ

সারাদেশে মাধ্যমিকের শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ‘এসাইনমেন্টের ফি’ বাবদ স্কুল কর্তৃপক্ষের অতিরিক্ত টাকা আদায় করার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট। সোমবার (২৩ নভেম্বর) সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট-এর কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আল কাদেরী জয় ও সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন প্রিন্স এক যুক্ত বিবৃতির মাধ্যমে বলেন, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের জারিকৃত প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, স্কুল কর্তৃপক্ষ টিউশন ফি ব্যতীত অন্য কোনো ফি শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে গ্রহণ করতে পারবে না। তা সত্তেও স্কুলে স্কুলে ‘এসাইনমেন্ট ফি’ সহ নামে বেনামে আরো নানা খাত যুক্ত করে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে।

রাজধানীর বিভিন্ন স্কুলে অভিভাবকদেরকে ৩ হাজার-৫ হাজার এমনকি তারও বেশি অঙ্কের টাকা পরিশোধ করতে বাধ্য করা হচ্ছে। এটা অন্যায় এবং শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের সঙ্গে জুলুমের সামিল। কোনো প্রকার নজরদারি ও আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ ব্যতিরেক শুধু প্রজ্ঞাপন জারি করে এই অন্যায় প্রক্রিয়া ঠেকানো যাবে না। এটা স্পষ্টতই মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের উদাসীনতা ও গাফিলতির ফল।

ছাত্র নেতারা আরো বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে আর্থিক অসচ্ছলতা নেমে আসায় শিক্ষা জীবন থেকে হাজার হাজার শিক্ষার্থী ঝরে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। তা সত্তেও শিক্ষার্থীদের বেতন ফি মওকুফ করা হয়নি। শত শত কোটি টাকা লুটপাট, দুর্নীতির মাধ্যমে লোপাট হয়ে গেলেও শিক্ষাখাতে বরাদ্দের সময়ই কেবল রাষ্ট্রীয় কোষাগারে টান পড়ে যায়। শিক্ষা ও শিক্ষানীতি নিয়ে রাষ্ট্রের ঔদাস্য ও ব্যবসায়ীক মনোভাব দিনের আলোর মতো স্পষ্ট প্রতীয়মান।

নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে ‘এসাইনমেন্ট ফি’ বাবদ অন্যায়ভাবে টাকা হাতিয়ে নেয়ার এই প্রক্রিয়া বন্ধ, ইতোমধ্যে গ্রহণকৃত টাকা শিক্ষার্থীদের ফেরত দেয়া, তদন্ত সাপেক্ষে এই প্রক্রিয়ার সঙ্গে জড়িতদের শাস্তির আওতায় আনাসহ শিক্ষাখাতে জরুরি বরাদ্দ দিয়ে করোনাকালীন টিউশন ফিসহ সব প্রকারের ফি মওকুফ করার দাবি জানান।

এসআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়