নিরাপদে কাতার পৌঁছাল বাংলাদেশ

আগের সংবাদ

চার সেমিফাইনালিস্ট পেল নেশন্স লিগ

পরের সংবাদ

ক্রিকেটারদের করোনা টেস্ট শুক্রবার

প্রকাশিত: নভেম্বর ১৯, ২০২০ , ১০:৪৭ অপরাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ১৯, ২০২০ , ১০:৪৭ অপরাহ্ণ

করোনা যেন পুরো পৃথিবীর নিয়ম ধারাতেই পরিবর্তন আনতে চলেছে। ক্রিকেটাঙ্গনেও এর প্রভাব পড়ছে। প্রতিটি টুর্নামেন্টের আগেই এখন কয়েক দফা করে করোনা টেস্ট করাতে হয়। খেলোয়াড়সহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে থাকতে হয় জৈব সুরক্ষা বলয়ে। আসন্ন বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টকে সামনে রেখেও ক্রিকেটারদের করোনা পরীক্ষা করা হবে। জৈব সুরক্ষা বলয়ে ঢোকার আগে মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে শুক্রবার তাদের এই টেস্ট শুরু হবে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী।

বৃহস্পতিবার দেবাশীষ চৌধুরী জানান, ‘শুধু ক্রিকেটার নন, দলের অন্যান্য সদস্যরা, যারা এই টুর্নামেন্টের সঙ্গে জড়িত থাকবেন সবাই জৈব সুরক্ষা বলয়ের মধ্যে থাকবেন। হোটেলকর্মী, মাঠকর্মী থেকে শুরু করে সবাই এর আওতায় রয়েছেন। তার আগে শুক্রবার ৫ দলের ক্রিকেটার, কোচ, কর্মকর্তাদের করোনা পরীক্ষা করা হবে। আর দলগুলো হোটেলে উঠবে ২১ নভেম্বর।’

যাতে এই টুর্নামেন্টে করোনার থাবা না পড়ে সে ব্যাপারে যথেষ্ট সজাগ বিসিবি। এ জন্য সার্বিক দিক বিবেচনায় নিচ্ছেন বিসিবির পরিচালনা পর্ষদের সদস্যরা। এ বিষয়ে দেবাশীষ চৌধুরী বলেন, ‘হোটেল কর্মী এবং ৫০ জন গ্রাউন্ডসম্যানেরও করোনা পরীক্ষা করা হবে। গ্রাউন্ডসম্যানদের থাকার জন্য মিরপুর ক্রীড়াপল্লীতে ব্যবস্থা করা হবে। সেখান থেকেই তারা যেন মাঠে তাদের যাওয়া আসা করতে পারে সেই পথটা কীভাবে নিরাপদ রাখা যায় সেজন্য আমরা দেখেছি, পরিদর্শন করেছি। জৈব সুরক্ষা বলয়টা যাতে ঠিক থাকে।

মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে শুরু হবে করোনা টেস্ট। বিসিবির একাডেমিক ভবনে সবার নমুনা সংগ্রহ করা হবে। তবে এ ব্যাপারে ব্যতিক্রম শুধু পাকিস্তান সুপার লিগে খেলে আসা তামিম ইকবাল। বুধবার রাতে দেশে ফিরেছেন তিনি। বর্তমানে নিজ বাসায় আইসোলেশনে আছেন তিনি। তাই তার বিসিবি ভবনে এসে নমুনা দেয়া সম্ভব নয়। তামিমের বাসায় গিয়েই তা করা হবে বলে জানিয়েছে বিসিবি কর্তৃপক্ষ। এদিকে পরীক্ষা শেষে শুক্রবার রাতেই করোনার ফলাফল দেয়া হবে। যাদের ফল নেগেটিভ আসবে তারাই অনুশীলনে যোগ দিতে পারবেন। পজিটিভ আসলে থাকতে হবে বাধ্যতামূলক আইসোলেশনে।

২৪ ডিসেম্বর পর্দা উঠবে বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টের। যার ফাইনাল হবে ১৮ ডিসেম্বর। পুরো টুর্নামেন্টে যাতে কেউ কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত না হন সে ব্যাপারে সজাগ টুর্নামেন্ট আয়োজক কর্তৃপক্ষ। এর আগে করোনায় পড়েছেন টাইগার ক্রিকেটার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। যদিও কদিন আগে মহামারি এই রোগ থেকে মুক্তি পেয়েছেন তিনি। আরেক তারকা মুমিনুল হক এখনো সেরে ওঠেননি। ক্রিকেটাঙ্গনে বাংলাদেশের এই দুজন ছাড়াও এর আগে মাশরাফি বিন মুর্তজা ও আবু জায়েদ রাহিও করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন।

এমআই

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়