শেখ হাসিনা দেশের ১৭ কোটি মানুষের আস্থার প্রতীক

আগের সংবাদ
স্কুলগামী শিক্ষার্থীরা

সীমিত পরিসরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার চিন্তা

পরের সংবাদ

নদী থেকে অবৈধ বালু উত্তোলন, হুমকির মুখে শতাধিক স্থাপনা

প্রকাশিত: নভেম্বর ১১, ২০২০ , ৬:৩৩ অপরাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ১১, ২০২০ , ৮:৩১ অপরাহ্ণ

নেত্রকোনার মদনে প্রশাসনের আড়ালে বালু দস্যুরা দিন দিন বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। প্রভাবশালীরা প্রশাসনকে তোয়াক্কা না করে নদীতে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে বালু উত্তোলন করছে। এতে ওই এলাকায় শতাধিক বাড়ি-স্থাপনা হুমকির মুখে পড়ায় ভুক্তভোগীরা বুধবার (১১ নভেম্বর) বিকালে প্রশাসনের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। বালু উত্তোলন বন্ধে স্থানীয়রা সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের কঠোর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

অভিযোগে জানা যায়, উপজেলার চানগাঁও ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মৈধাম গ্রামের তোফায়েল আহমেদ ডালিম, ইউপি সদস্য আনোয়ার হোসেন ও ড্রেজার মালিক ইমরুল মিয়া বুধবার রাতের আঁধারে বয়রাহালা নদীতে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে সরকারি অনুমোদন না নিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করছে। বালু উত্তোলন ও বিক্রি করে প্রভাবশালীরা লাভবান হলেও এলাকার শতাধিক বাড়ি ও বিভিন্ন স্থাপনা হুমকির মুখে পড়েছে।

মৈধাম গ্রামের হাইউল মিয়া অভিযোগ করে বলেন, বালু দস্যুরা এলাকার প্রভাবশালী হওয়ায় কেউ তাদের বাধা দেয়ার সাহস পায় না। এরা ড্রেজার মেশিন বসিয়ে নদীর গভীর থেকে বালু উত্তোলন করছে। এতে গর্তের সৃষ্টি হওয়ায় শতাধিক বাড়ি ও বিভিন্ন স্থাপনা হুমকির মধ্যে রয়েছে।

নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায়, ২০১০ সালে বালু উত্তোলন নীতিমালায় যন্ত্রচালিত মেশিন দ্বারা ড্রেজিং পদ্ধতিতে নদীর তলদেশ থেকে বালু উত্তোলন নিষিদ্ধ করা হয়েছে। অথচ বালু দস্যুরা সরকারি ওই আইন অমান্য করে ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করছে।

এ বিষয়ে বালু উত্তোলনকারী ইউপি সদস্য আনোয়ার বলেন , ২০১৮-১৯ অর্থ বছরের টিআর প্রকল্পের কাজ করার জন্য আমরা বালু উত্তোলণ করছি। রাস্তা করার জন্য পাশে কোন মাটি নেই তাই নদী সংলগ্ন ব্যাক্তি মালিকানা জমি থেকে বালু উত্তোলন করছি। এতে বাড়ি কিংবা স্থাপনার ক্ষতি হবে না।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার বুলবুল আহমেদ জানান, এ ব্যাপারে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। মোবাইল কোর্ট করে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডিসি

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়