রুদ্ধশ্বাস লড়াই: বাইডেনের দরকার ৪৬, ট্রাম্পের ৫৫

আগের সংবাদ

সৈকতে অশ্লীল ভিডিও করায় পুনম পান্ডের বিরুদ্ধে মামলা!

পরের সংবাদ

নিষেধাজ্ঞা শেষে মাছ ধরতে নেমেছেন চরফ্যাশনের জেলেরা

প্রকাশিত: নভেম্বর ৪, ২০২০ , ১:৪৮ অপরাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ৪, ২০২০ , ১:৪৮ অপরাহ্ণ

মাছ ধরতে নেমেছেন চরফ্যাশনের জেলেরা। ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞা শেষে মৎস্য শিকারে চরফ্যাশনের জেলেরা নদী ও সাগরে মৎস্য শিকারে ভাসিয়েছেন নৌকা। নদী ও সাগরে সব ধরনের মৎস্য শিকারের ওপর ২২ দিনের সরকারি নিষেধাজ্ঞা শেষে ৪ নভেম্বর থেকে মৎস্য শিকারে নেমেছে উপজেলার প্রায় ৪০ হাজার জেলে। মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১২টার পর থেকেই জাল ও ফিশিং বোট নিয়ে সাগরের দিকে ছুটছেন এসব জেলেরা। আবার অনেকে রওনা হয়েছেন বুধবার সকাল থেকে।

ইলিশের মৌসুমে নদীতে পর্যাপ্ত ইলিশের দেখা না পেলেও গভীর সাগরে ইলিশ পাওয়ার আশায় ব্যাপক উৎসাহ ও উদ্দীপনা নিয়ে দল বেঁধে বেড়িয়ে পড়ছেন জেলেরা। তাদের প্রত্যাশা নিষেধাজ্ঞার ফলে আগের চেয়ে মাছের উৎপাদন বৃদ্ধি পাবে সাগরে।

এদিকে আজ সকাল থেকেই আড়ৎদাররাও তাদের আড়তে হাক ডাক দিয়ে মাছ বিক্রি শুরু করেছেন। ইলিশ রপ্তানিতে নতুন করে ঢাকাসহ বিভিন্ন জেলার পাইকারদের সাথে যোগাযোগ শুরু করেছেন এসব আড়ৎদাররা। উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের মৎস্যঘাটগুলোতে বিভিন্ন জেলা থেকে পাইকারি আড়ৎদাররা মাছ কেনার জন্যও ভিড় জমিয়েছেন।

চরফ্যাশন উপজেলার সামরাজ মৎস্যঘাট থেকে সাগরে মাছ শিকার করা জেলেরা জানান, গত ২২ দিন সাগরে মাছ শিকারে নিষেধাজ্ঞা থাকায় নদী ও সাগরে যেতে না পাড়ায় ধারদেনা করে সংসার চালাতে হয়েছে। তবে উপজেলা প্রশাসন থেকে অনেকেই নিষেধাজ্ঞাকালীন সরকারি সহায়তা না পাওয়ার অভিযোগ করেন।

উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মারুফ হোসেন মিনার জানান, নদী ও সমুদ্রে মৎস্যসহ মূল্যবান প্রাণিজ সম্পদ সুরক্ষায় চলতি বছরের ১৪ অক্টোবর থেকে ৪ নভেম্বর পর্যন্ত ২২ দিন নদী ও বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরা নিষেধাজ্ঞারোপ করে সরকার। ইলিশের প্রজনন ও জাটকা নিধনে এ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।

এমআই

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়