চাকরি রাজস্বকরণের দাবি সিএইচসিপিদের

আগের সংবাদ

প্রেমিককে ডেকে নিয়ে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন

পরের সংবাদ

মোহাম্মাদপুরে শিশু গৃহকর্মী নির্যাতনে গৃহকর্ত্রী গ্রেপ্তার

প্রকাশিত: নভেম্বর ১, ২০২০ , ৬:২৫ অপরাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ১, ২০২০ , ৬:২৫ অপরাহ্ণ

রাজধানীর মোহাম্মাদপুরে একটি বাসায় ১০ বছরের এক গৃহকর্মীকে নির্যাতনের অভিযোগে মামলা দায়ের করেছে শিশুটির পরিবার। মামলায় একমাত্র আসামি গৃহকর্ত্রী মাসুমা বিনতে মইনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আর শিশুটিকে চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করা হয়েছে।

মোহাম্মদপুর থানার উপ পরিদশর্ক (এসআই) মো. শফিউল আলম জানান, সুমাইয়া নামের ১০বছরের শিশুটির বাড়ি ময়মনসিংহ জেলায়। তার মা মোহাম্মাদপুর জেনেভা ক্যাম্পে থাকেন। গত ৭মাস ধরে শিশুটি মোহাম্মাদপুর শেরশাশুড়ি রোডের ২০/১১ নম্বর বাসায় গৃহকর্ত্রী মাসুমা বিনতে মইনের বাসায় কাজ করতো। কাজে যোগ দেয়ার প্রথম ২ মাস ভালই ছিল সে। এরপর থেকেই তার উপর শারীরিক নির্যাতন শুরু হয়।

তিনি জানান, কাজের বিভিন্ন ভুল ধরে, এবং নানান অযুহাতে শিশুটিকে মারধর করতো গৃহকর্ত্রী মাসুমা। ঘুম থেকে উঠতে একটু দেড়ি হলে মারতো, কাজে একটু ভুল হলে মারতো। শিশুটির পিঠে গরম খুনতি দিয়ে ছ্যাঁকা দিতো, গলা চেপে ধরতো এমনকি শরীরে গরম পানি ছিটিয়ে দিতো। নির্যাতনের বিষয়টি জানাজানি হয়ে যাবে দেখে শিশুটির পরিবারের কারোর সাথেও দেখা করতে দিতো না সে। এই নির্মম নির্যাতন সইতে না পেরে শিশুটি গত পরশু ওই বাসা থেকে পালিয়ে বাইরে বেরিয়ে যায়। এরপর রাস্তা থেকে লোকজন তাকে গ্রামের ঠিকানা মত একটি বাসে চড়িয়ে দেয়।

শিশুটি বাড়িতে পৌঁছালে স্বজনরা নির্মম নির্যাতনের চিহ্ন দেখতে পেয়ে গতকাল আবার ঢাকায় শিশুটির মায়ের কাছে নিয়ে আসে। এরপর গতকাল রাতে শিশুটির মা সহ থানায় এসে ঘটনাটি জানায়। এরপরই একটি মামলা দায়ের করে। ওই মামলায় একমাত্র আসামি গৃহকর্ত্রী মাসুমাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাকে আজ রবিবার আদালতে পাঠানো হয়েছে। আর শিশুটিকে চিকিৎসার জন্য রবিবার দুপুরে ঢাকা মেডিকেলের ওসিসিতে পাঠানো হয়েছে।

পিআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়