সত্য বললে বুকে গুলি করব, পিঠ দিয়ে বের হবে

আগের সংবাদ

'মিথ্যা খবর লিখলেই মামলা'

পরের সংবাদ

রাজধানীতে ভিড় বেড়েছে মণ্ডপে

প্রকাশিত: অক্টোবর ২৪, ২০২০ , ৬:০৯ অপরাহ্ণ আপডেট: অক্টোবর ২৪, ২০২০ , ৬:০৯ অপরাহ্ণ

একে তো মহামারি করোনার সংক্রমণ, তার ওপর সকাল থেকেই বৃষ্টি। তবে তাই বলে কি আর দিন-ক্ষণ থেমে থাকে! তাইতো মহাসপ্তমী পেরিয়ে সনাতন ধর্মাবলম্বী বাঙালিরা মেতেছেন তাদের বড় সাধের দুর্গাপূজার মহাঅষ্টমীতে। পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী ভক্তদের অধিকাংশই বাসায় বসেই অঞ্জলি দিয়েছেন। তবে করোনা পরিস্থিতি ও বৃষ্টির কারণে আগের দু’দিনের তুলনায় অষ্টমী পূজায় ভিড় কিছুটা ছিল অনেকটা। আগামীকাল রবিবার রীতি অনুযায়ী মহানবমী পূজা হবে।

শনিবার (২৪ অক্টোবর) সকালে ষোড়শ উপাচারে অনুষ্ঠিত হয় দেবীর পূজা। ১০৮ পদ্ম এবং প্রদীপ দিয়ে দেবী দুর্গার আরাধনা করা হয়। সকাল ৫টা ১৬ মিনিটের মধ্যে দুর্গাদেবীর মহাষ্টম্যাদি বিহিত পূজা ও মহাঅষ্টমীর ব্রতোবাস শুরু হয়। এরপর সকাল ৬টা ৩৫ মিনিট থেকে ৭টা ২৩ মিনিটের মধ্যে অনুষ্ঠিত হয় সন্ধিপূজা। পূজার আনুষ্ঠানিকতার পর ভক্তরা অঞ্জলি দেন। তবে বাসায় থেকে অঞ্জলি দেওয়ার জন্য বিভিন্ন টেলিভিশনে ও ফেসবুকে সরাসরি অঞ্জলি প্রদান অনুষ্ঠান সম্প্রচার করা হয়।

করোনার সংক্রমণ ও বৃষ্টির কারণে পূজা অর্চনাকারীদের জন্য এবার পরিবেশটা বেশ প্রতিকূল। তারপরও থেমে নেই মা দুর্গার ভক্তরা। অন্যান্যবারের মতো উৎসবে ভাটা দেখা গেলেও বৃষ্টি উপেক্ষা করে, স্বাস্থ্যবিধি মেনে অঞ্জলি দিতে পূজামণ্ডপে এসেছেন কেউ কেউ। আগের দু’দিনের তুলনায় শনিবার ভিড় কিছুটা বেশি দেখা গেছে রাজধানীর পূজা মণ্ডপগুলোতে।

রাজধানীর কলাবাগান মাঠে গিয়ে দেখা গেছে, গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হচ্ছে। এর মাঝেই অনেক ভক্ত অঞ্জলি দিচ্ছেন। তবে ভক্তদের ভিড় করতে দেখা যায়নি। ভিড় না করতে পূজা উদযাপন কমিটির পক্ষ থেকেও নজরদারি রাখা হয়েছে। ওই মণ্ডপে উপস্থিতি শ্যামলী নামের এক ভক্ত জানান, সরাসরি মণ্ডপে এসে অঞ্জলি দেওয়ার মর্যাদা আলাদা। তাই মা দুর্গাকে অঞ্জলি জানাতে মণ্ডপে এসেছি। ভক্তদের প্রার্থনায় মা দূর্গা দ্রুত পুরো পৃথিবীকে করোনামুক্ত করবেন বলে তিনি বিশ্বাস করেন।

অনেকটা একই চিত্র দেখা গেছে, জয়কালী মন্দির, বরদেশ্বরী কালিমাতা মন্দির, রমনা কালীমন্দির, শ্যামবাজার শিবমন্দির, খামার বাড়ি মন্দির, সিদ্ধেশ্বরী কালীমন্দির ও স্বামীবাগ ইসকন মন্দিরসহ নগরীর অন্যান্য মণ্ডপগুলোতে। তবে ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দিরে ভিড় ছিল বেশি। সন্ধ্যার পর এই ভিড় কমতে শুরু করে। আজ মহানবমীর দিনে ভিড় আরো বাড়বে বলে আয়োজকরা মনে করেন।

এসএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়