ভিড়ের মধ্যে উত্ত্যক্তকারীর আঙুল মটকে দিয়েছিলাম

আগের সংবাদ

এবার ভুল করতে চান না জাহানারা

পরের সংবাদ

সত্যজিতের জন্মশতবার্ষিকীতে আসছে ফেলুদা ও শঙ্কু চমক

প্রকাশিত: অক্টোবর ২১, ২০২০ , ১২:১০ অপরাহ্ণ আপডেট: অক্টোবর ২১, ২০২০ , ১২:৩৭ অপরাহ্ণ

সত্যজিৎ রায়ের ১০০তম জন্মবর্ষ উদ্‌যাপনে ফেলুদা এবং প্রোফেসর শঙ্কুকে একটি ছবিতে নিয়ে আসছে দ্য শো মাস্ট গো অন প্রযোজনা সংস্থা। করোনার কারণে দীর্ঘ বিরতি দিয়ে এটিই হবে তাদের বড় কোনো কাজে হাত দেয়। পরিচালনার দায়িত্বে সন্দীপ রায়।

কীভাবে দুই আইকনিক চরিত্র এক ছবিতে আসবে? পরিচালক সন্দীপ রায় বলেন ‘‘এক ছবি মানে কিন্তু এক ফ্রেম নয়। ছবির একটা হাফে ফেলুদা, অন্য হাফে শঙ্কু, এ ভাবে ভাগ করছি আমরা,’’। কোন কোন কাহিনী নিয়ে ছবি করবেন, তা এখনও চূড়ান্ত নয়। অতিমারি পরিস্থিতিতে বিদেশে গিয়ে শুটিংয়ে সমস্যা রয়েছে। এ দিকে প্রোফেসর শঙ্কু বললে পাঠকের মনে বিদেশের গল্পগুলোর কথাই প্রথমে আসে। উল্টো দিকে ফেলুদা মানেই অধিকাংশই দেশের গল্প। পরিচালকের কথায়, ‘‘শঙ্কু আর ফেলুদার মতো দুটো চরিত্রকে এক ছবিতে নিয়ে আসাটা বড় চ্যালেঞ্জ। তবে আশা করি, দর্শকের এই এক্সপেরিমেন্ট ভাল লাগবে।’’ শঙ্কুর প্রথম দিকের গল্প, যেগুলোর প্রেক্ষাপট গিরিডি সেই রকম কাহিনি বাছতে চান তিনি। তবে ফেলুদার কাহিনির ক্ষেত্রে কোনও কিছুই খোলসা করলেন না সন্দীপ। শঙ্কুর মতো ফেলুদারও প্রথম দিকের কাহিনি নির্বাচন করলে, সেখানে জটায়ুর চরিত্র থাকবে না। সে ক্ষেত্রে দর্শক খানিক নিরাশ হতে পারেন।

এদিকে শঙ্কুর চরিত্রে প্রত্যাশামতো ধৃতিমান চট্টোপাধ্যায়কেই ভাবা হচ্ছে। তবে ফেলুদা কে হবেন, তা এখনই ভাঙতে চাইলেন না নির্মাতারা। ২০১৪ সালে আবীর চট্টোপাধ্যায়কে নিয়ে ‘বাদশাহী আংটি’ এবং ২০১৬ সালে সব্যসাচী চক্রবর্তীকে নিয়ে ‘ডবল ফেলুদা’ করেছিলেন সন্দীপ। তবে দু’টি আলাদা প্রযোজনায়। সে কারণেই এবার ফেলুদা’কে, তা নিয়ে আগ্রহ একটু বেশি।

এমআই

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়