সাপের কামড়ে ইবি শিক্ষার্থীর মৃত্যু

আগের সংবাদ

কাজ দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে গৃহপরিচারিকাকে ধর্ষণ

পরের সংবাদ

বাবার ইচ্ছা পূরণ করলেন ইগা

কাগজ ডেস্ক

প্রকাশিত হয়েছে: অক্টোবর ১১, ২০২০ , ৭:০৭ অপরাহ্ণ

মাত্র ১৯ বছর বয়সে গত ফ্রেঞ্চ ওপেনের শিরোপা জয় করেন পোল্যান্ডের টেনিসার ইগা সুইতেক। তার আগে পোল্যান্ড থেকে কোনো টেনিসার কখনো কোনো গ্র্যান্ডস্লামের শিরোপা জয় করতে পারেনি। হোক সেটি ছেলে বা মেয়ে। কিন্তু একজন মেয়ে হয়ে সেটি করে দেখিয়েছেন সুইতেক। তার হাত ধরে ফ্রেঞ্চ ওপেনের মুকুট পেয়েছে পোল্যান্ড।

ইগা সুইতেক ফ্রেঞ্চ ওপেনের শিরোপা জয় করেন কোনো সেটে না হেরে। অর্থাৎ তিনি ফ্রেঞ্চ ওপেনে যতোগুলো ম্যাচ খেলেছেন তার সবগুলোতেই সরাসরি সেটে জয় পেয়েছেন তিনি। মাত্র ১৯ বছর বয়সে যা অনন্য এক কীর্তি।

ইগা সুইতেক যে হঠাৎ করে বা কাকতালীয়ভাবে ফ্রেঞ্চ ওপেনের শিরোপা জয় করেছেন এমনটি নয়। তিনি তার ছোট বয়স থেকেই টেনিসে বেশ ভালো ছিলেন। সিনিয়র লেভেলে খেলার আগে তিনি জুনিয়র লেভেলে বেশ কয়েকবার শিরোপা জয় করেছেন। অবশেষে সিনিয়র লেভেলে এই ২০২০ সালের শেষ গ্র্যান্ডস্লামের শিরোপা জয় করে বড় সাফল্য পেয়েছেন তিনি।

একদম ছোট বয়সেই তিনি নিজের হাতে তুলে নিয়েছিলেন টেনিসের র‌্যাকেট। বাবার ইচ্ছা ও বড় বোনকে দেখেই তিনি টেনিস খেলার প্রতি নিজের ভালোবাসা তৈরি করতে পারেন। ইগার বড় বোনের নাম হলো আগাতা। আর তার বাবার নাম হলো থমাস সুইতেক।

থমাস সুইতেক পেশায় ছিলেন একজন রোয়ার। রোয়ার হলো নৌকাবাইচের মতো এক ধরনের প্রতিযোগিতা। এই খেলায় ছোট নৌকা নিয়ে প্রতিযোগিতায় অংশ নেয় প্রতিযোগিরা। ইগার বাবা পোল্যান্ডের রোয়ার অলিম্পিক দলের হয়ে ১৯৮৮ সালের সিউল অলিম্পিকে অংশ নিয়েছিলেন। তিনি যেহেতু একজন ক্রীড়াবিদ ছিলেন তাই তিনি তার দুই মেয়েকেও ক্রীড়াবিদ বানাতে চেয়েছিলেন।

তবে তিনি তার মেয়েদের দলগত খেলার বদলে একক খেলাগুলোর প্রতি মনোযোগ দেয়ার জন্য তাগিদ দিয়েছিলেন। কারণ দলগত খেলাগুলোর চেয়ে একক খেলাগুলোতে সাফল্য পাওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে। কারণ একক খেলাগুলোতে নিজের উপর নিজের স্বাধীনতা থাকে। আর থমাসের বড় মেয়ে তার বাবার ইচ্ছা অনুযায়ী একটি একক খেলাকে বেঁছে নেন। আর সেই একক খেলা হিসেবে ইগার বড় বোন বেঁছে নেন সাঁতারকে। কিন্তু সাঁতারে বেশিদিন টিকতে পারেননি তিনি। ইনজুরি সমস্যার কারণে সাঁতার ছেড়ে তিনি বেঁছে নেন টেনিসকে।

ইগার বড় বোন যখন টেনিসকে বেঁছে নেন তখন ইগাও কিছুটা বড় হন। আর বোনের সঙ্গে খেলার জন্য তিনিও টেনিস খেলা শুরু করেন। এরপর ধীরে ধীরে তিনি একজন পেশাদার টেনিসার হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেন। তবে ইগার বড় বোন এদিক দিয়েও দুর্ভাগা ছিলেন। কারণ ইনজুরির কারণে তিনি টেনিসেও ক্যারিয়ার গড়তে পারেননি। ফলে ইগার বাবার স্বপ্ন পূরণের জন্য বাকি ছিলেন শুধুমাত্র ইগাই। তিনি তার বাবাকে হতাশ করেননি। শেষ পর্যন্ত এ বছরের ফ্রেঞ্চ ওপেনের শিরোপা জয় করে বাবার স্বপ্নকে পূরণ করেছেন ইগা।

এসআর