ধর্ষণের প্রতিবাদে উত্তাল কুড়িগ্রাম    

আগের সংবাদ

চীনকে ভয়ে রাখতে সীমান্তে ভারতের ক্ষেপণাস্ত্র

পরের সংবাদ

আট বছর পর ফের সেমিতে পেত্রা

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: অক্টোবর ৭, ২০২০ , ৯:১৮ অপরাহ্ণ

২০১২ সালে ফ্রেঞ্চ ওপেনের সেমিফাইনালে খেলেছিলেন চেক রিপাবলিকের টেনিসার পেত্রা কেভিটোভা। ২০২০ সালের আগে আরো ৭ বার ফ্রেঞ্চ ওপেনে অংশ নিলেও সেমিফাইনাল দূরে থাক কোয়ার্টার ফাইনালেও জায়গা করে নিতে পারেননি তিনি। তবে এবার ভাগ্য খুলেছে তার। ৮ বছর পর ফ্রেঞ্চ ওপেনের কোয়ার্টার ফাইনালে জায়গা করে নেয়ার পর এবার সেমিফাইনালও নিশ্চিত করেছেন তিনি। পেত্রা বুধবার কোয়ার্টার ফাইনালের ম্যাচে মুখোমুখি হন জার্মান সুন্দরী লরা সিগমুন্ডের বিপক্ষে। ২০১১ ও ২০১৪ সালে উইম্বলডনের শিরোপা জয় করা পেত্রা কেভিটোভা লরাকে হারান ৬-৩, ৬-৩ সেটে।

মেয়েদের এককে কোয়ার্টার ফাইনালের অন্য ম্যাচে জয় পেয়ে শেষ চারে বা সেমিফাইনালের টিকেট বাগিয়ে নিয়েছেন পোলিশ সুন্দরী ইগা সুইতেক। তিনি কোয়ার্টার ফাইনালে হারিয়েছেন মেক্সিকান টেনিসার মার্টিনা ত্রেভিসানকে। মার্টিনাকে ইগা হারিয়েছেন ৬-৩, ৬-১ সেটে। আর এবারের ফ্রেঞ্চ ওপেনের সেমিফাইনালে জায়গা করে নেয়ার মাধ্যমে নিজের ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো কোনো গ্র্যান্ড¯øামের সেমিফাইনালে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেন সুইতেক।

অন্যদিকে ছেলেদের এককের কোয়ার্টার ফাইনালে জয় তুলে নিয়েছেন স্পেনিশ কিংবদন্তি রাফায়েল নাদাল। তিনি কোয়ার্টার ফাইনালের ম্যাচে খেলতে নামেন ইতালিয়ান তরুণ টেনিসার জানিক সিনারের বিপক্ষে। আর সিনারকে নাদাল হারান ৬-৭ (৭-৪), ৬-৪, ৬-১ সেটে। এদিকে এই ম্যাচটিতে জয় পেয়ে সেমিফাইনালে গেলেও ম্যাচটি শেষে টুর্নামেন্টের আয়োজকদের ওপর ক্ষোভ ঝাড়েন নাদাল। কারণ বুধবার তাকে ম্যাচটি খেলতে হয়েছে সবার শেষে। আর সবার শেষে খেলার কারণে তাকে খেলতে হয়েছে ১৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায়। ফ্রেঞ্চ ওপেনের প্রধান কোর্টে বুধবার সব মিলিয়ে ৫টি ম্যাচ ছিল। আর এ কারণে পঞ্চম ম্যাচটি অর্থাৎ নাদালের ম্যাচটি শুরু হতে হতে সন্ধ্যা পার হয়ে যায়। আর সন্ধ্যা হওয়ার পরই কোর্টে শীতল হাওয়া বইতে থাকে। যার ফলে নাদালকে বেশ কষ্ট করে খেলতে হয়।

ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে নাদাল বলেন, ‘আয়োজকরা কিভাবে এমন ঠাÐার মধ্যে একই দিনে ৫টি ম্যাচ আয়োজন করল। এমন ঠাÐার মধ্যে টেনিস খেলা যায় না। হ্যাঁ আমি মানছি ফুটবলাররা নিয়মিতই এমন ঠাÐায় খেলে থাকেন। কিন্তু তারা সারাক্ষণ মাঠে দৌড়াদৌড়ির মধ্যে থাকে। আমরা তো থামি। আবার খেলি।’

এদিকে ফ্রেঞ্চ ওপেন চলাকালীন সময়েই খবর বেরিয়েছে এবারের নারী দ্বৈত প্রতিযোগিতায় ঘটেছে ম্যাচ পাতানোর ঘটনা। ম্যাচ পাতানোর ঘটনাটি ঘটেছে গত ৩০ সেপ্টেম্বর। এর পরের দিন ১ অক্টোবর ওই ম্যাচটি নিয়ে মাঠে নামে ফরাসি পুলিশ। তাছাড়া ম্যাচ পাতানোর ঘটনায় তদন্ত করছে টেনিসে দুর্নীতিবিরোধী সংগঠনও।

জানা যায়, গত ৩০ সেপ্টেম্বর প্রথম রাউন্ডের ম্যাচে রোমানিয়ার আন্দ্রে মিতু ও প্রেট্রিসিয়া মারিয়ার বিপক্ষে খেলতে নামেন রাশিয়ার ইয়ানা সিজিকোভা ও আমেরিকার ম্যাডিসন ব্রেঙ্গেল। সেই ম্যাচটিতেই ফিক্সিংয়ের কাÐ ঘটান রাশিয়ান টেনিসার ইয়ানা সিজিকোভা এমনটি সন্দেহ করা হচ্ছে। তার বিরুদ্ধেই এখন মূল তদন্ত চলছে। তবে তিনি সত্যিই ম্যাচ পাতানোতে জড়িত কিনা তা জানতে আরো বেশ কয়েকদিন অপেক্ষা করতে হবে।

এমএইচ