জগন্নাথদী দারুস সুন্নাহ মাদ্রাসার আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

আগের সংবাদ

ধর্ষণ থেকে রক্ষায় ভয়ঙ্কর কাণ্ড গৃহবধূর!

পরের সংবাদ

বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড সিরিজের সূচি চূড়ান্ত

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২০ , ৯:৩৫ অপরাহ্ণ আপডেট: সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২০ , ৯:৩৫ অপরাহ্ণ

বাংলাদেশের বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের ওয়ানডে ও সমান সংখ্যক টি-টোয়েন্টি ম্যাচের সূচি চূড়ান্ত করেছে আয়োজক নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড। সব ঠিক থাকলে করোনা বিরতি কাটিয়ে এটিই হবে টাইগারদের প্রথম কোনো বিদেশ সফর। ২০২১ সালের ১৩ মার্চ থেকে শুরু হওয়া এই সিরিজে অংশ নিতে টাইগাররা দেশ ছাড়বে ২৪ ফেব্রুয়ারি। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে খবরটি নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড-বিসিবি। নিউজিল্যান্ডের সরকার গত সপ্তাহেই ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও পাকিস্তানের সফর অনুমোদন দিয়েছে। সঙ্গে অবশ্য একটি শর্ত জুড়ে দিয়েছে তারা দল দুটিকে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। অস্ট্রেলিয়া ও বাংলাদেশের সফরেও একই শর্ত বহাল থাকবে। সব দলই ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন করবে ক্রাইস্টচার্চে। সেখানে তারা লিংকন ইউনিভার্সিটতে এনজেডসির হাই পারফরম্যান্স সেন্টারে অনুশীলনের সুবিধা পাবে।

নিউজিল্যান্ডে ক্রিকেট ফিরতে যাচ্ছে বলে খুশিতে আটখানা এনজেডসির প্রধান নির্বাহী হোয়াইট, ‘আমি (ক্রিকেট ফেরার) এই ঘোষণা দিতে পেরে রোমাঞ্চিত। গত ছয় মাস আমরা ক্রিকেট ফেরানো নিয়ে একটা অনিশ্চয়তার মধ্য দিয়ে কাটিয়েছি।’ নিউজিল্যান্ড সরকারকে ধন্যবাদও জানিয়েছেন হোয়াইট, ‘জটিল এই সময়ে সব প্রক্রিয়ায় আমাদের সাহায্য করার জন্য নিউজিল্যান্ড সরকারের প্রতি আমরা কৃতজ্ঞ।

নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড আসন্ন গ্রীষ্মকালীন মৌসুমের জন্য নিজেদের পূর্ণাঙ্গ ক্রিকেট সূচি প্রকাশ করেছে। যেখানে তাদের মৌসুম শুরু হবে আগামী নভেম্বরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজ দিয়ে এবং শেষ হবে মার্চে বাংলাদেশ সিরিজের মাধ্যমে। নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড জানিয়েছে, এই সফরে তিনটি ওয়ানডে এবং তিনটি টি-টোয়েন্টি খেলবে টাইগাররা। এই ম্যাচগুলোর তারিখ ও ভেন্যুসহ পূর্ণাঙ্গ সূচিই প্রকাশ করেছে বোর্ডটি। ২০২১ সালের ১৩ মার্চ ডানেডিনে হবে এই সফরের প্রথম ওয়ানডে। আর ২৮ মার্চ হ্যামিল্টনে শেষ টি-টোয়েন্টি দিয়ে পর্দা নামবে এই সফরের।

এর আগে ২০১৯ সালের ১৫ মার্চ ক্রাইস্টার্চের একটি মসজিদে সন্ত্রাসী হামলায় নিহত হয়েছিলেন ৫১ জন মুসল্লি। সেই ঘটনায় সফর স্থগিত করেই ফিরে আসতে হয়েছিল টাইগারদের। নিউজিল্যান্ড তাদের ঘরোয়া মৌসুম শুরু করতে যাচ্ছে ২৭ নভেম্বর। শুরুতেই তাদের প্রতিপক্ষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তাদের সঙ্গে তিন টি-টোয়েন্টির সঙ্গে দুটি টেস্ট খেলবে নিউজিল্যান্ড। ডিসেম্বরে সমসংখ্যক টি-টোয়েন্টি ও টেস্ট ম্যাচ খেলবে পাকিস্তানের বিপক্ষেও। তারপরেই ফেব্রæয়ারিতে তারা আতিথ্য দেবে অস্ট্রেলিয়াকে। এই সিরিজে ৫টি টি-টোয়েন্টি খেলবে দুই দল।

গতকাল বিসিবির সিইও নিজাম উদ্দিন চৌধুরী সুজনের উদ্ধৃতি দিয়ে বলা হয়েছে, মহামারির সময়ে সিরিজ আয়োজনের মতো এমন চ্যালেঞ্জিং একটি কাজের জন্য আমি নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের প্রশংসা না করে পারছি না। করোনা মহামারির ভয়াবহতা থেকে বেরিয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে এই সফরটি বিশেষ তাৎপর্য বহন করবে। সত্যিকার অর্থেই আমরা নিউজিল্যান্ডে খেলতে আগ্রহী। সংক্ষিপ্ত সংস্করণের ক্রিকেটে সাম্প্রতিক বছরগুলো বাংলাদেশ ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার দ্বৈরথ সত্যিই উপভোগ্য হয়ে উঠেছে।

চলতি বছরে কিউদের বিপক্ষে দুটি সিরিজ খেলার কথা ছিল টাইগারদের। এর প্রথমটি ছিল আগস্ট-সেপ্টেম্বরে। টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ হিসেবে দুই ম্যাচ সিরিজের টেস্ট খেলতে বাংলাদেশে আসার কথা ছিল ব্ল্যাক ক্যাপসদের। কিন্তু সেখানে বাধ সেধেছে করোনা। দ্বিতীয় সিরিজটি ছিল অক্টোবর-নভেম্বরে। অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠেয় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রস্তুতি হিসেবে তিন ম্যাচ সিরিজের টি-টোয়েন্টি খেলতে নিউজিল্যান্ড সফরে যাওয়ার কথা ছিল টাইগারদের।

বাংলাদেশ দলের নিউজিল্যান্ড সফরের সূচি

প্রথম ওয়ানডে- ১৩ মার্চ, ওটাগো ওভাল, ডানেডিন
দ্বিতীয় ওয়ানডে- ১৭ মার্চ, হাগলি ওভাল, ক্রাইস্টচার্চ
তৃতীয় ওয়ানডে- ২০ মার্চ, বেসিন রিজার্ভ, ওয়েলিংটন
প্রথম টি-টোয়েন্টি- ২৩ মার্চ, ম্যাকলিন পার্ক, নেপিয়ার
দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি- ২৬ মার্চ, ইডেন পার্ক, অকল্যান্ড
তৃতীয় টি-টোয়েন্টি- ২৮ মার্চ, সেডন পার্ক, হ্যামিল্টন

এসএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়