রংপুরে ১৪ ঘণ্টায় ৪৩৩ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত

আগের সংবাদ

টিকিটের আশায় সড়কে সৌদি প্রবাসীরা

পরের সংবাদ

মোদিকে দুষলেন আফ্রিদি

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২০ , ১০:৩১ পূর্বাহ্ণ আপডেট: সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২০ , ৫:২২ অপরাহ্ণ

ভারত-পাকিস্তান ক্রিকেট ম্যাচ শুরুর আগে দুদেশের ক্রিকেট ভক্তরা একে অন্যদের মধ্যে বিবাদে জড়ান। দর্শকরা মাঠে বসে খেলা দেখার জন্য টিকেট সংগ্রহে প্রতিযোগিতায় নামেন। এই সুযোগে টিকেট কালোবাজারিরা টিকেটের দাম কয়েক গুণ বাড়িয়ে দেন। এত গেল মাঠের বাইরের কথা। এমনকি ম্যাচে দুদলের ক্রিকেটারদের শারীরিক ভঙ্গি থাকে চোখে পড়ার মতো। ম্যাচে প্রতিপক্ষ দলকে একে অন্যের বিরুদ্ধে বিবাদে জড়াতে দেখা যায় হরহামেশাই। যার ফলে উত্তেজনার বারুদ ঠাসা ম্যাচে আম্পায়ারকে বাড়তি বেগ পোহাতে হয়। কিন্তু আক্ষেপের বিষয় সাম্প্রতিককালে পাকিস্তান ভারতের মধ্যে কোনো দ্বিপক্ষীয় সিরিজ না হওয়ায় বিশ^ ক্রিকেট সমর্থকদের অপেক্ষার প্রহর ক্রমে দীর্ঘ থেকে দীর্ঘায়িত হচ্ছে।

সম্প্রতি পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদি আরব নিউজকে দেয়া এক বিশেষ সাক্ষাৎকারে বলেন, বিশ্ব ক্রিকেটের অন্যতম আকর্ষণ পাক-ভারত সিরিজ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আমলে সম্ভব নয়। পাকিস্তান সরকার এ দুদেশের মধ্যে সিরিজ আয়োজনে যথেষ্ট আগ্রহ দেখালেও ভারতের ক্ষমাতাশীল দল বরাবরের মতোই সিরিজ আয়োজন করতে অমত।

এসময় পাকিস্তানের সাবেক অলরাউন্ডার আফ্রিদি আরো যোগ করে বলেন, পাকিস্তানের ক্রিকেটারদের সামর্থ্য থাকা সত্তে্বও তারা আইপিএলের দলগুলোতে সুযোগ পাচ্ছেন না। আফ্রিদি বিশ্বাস করেন পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা ফ্রাঞ্চাইজি ক্রিকেটের সবচেয়ে সফল প্রিমিয়ার লিগে খেলার সম্ভাবনাকে দারুণভাবে মিস করেন।

আফ্রিদি আরো বলেন, আমি জানি আইপিএল এরই মধ্যে বিশ্বে বড় ব্র্যান্ডে পরিণত হয়েছে যেখানে সামর্থ্য থাকা সত্তে¡ও খেলতে পারছে না পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা। এসময় আফ্রিদি বলেন সময়ের সেরা ক্রিকেটার বাবর আজম ও বাকি ক্রিকেটারদের আইপিএলে জায়গা না পাওয়া দুঃখজনক। এই আসরে অংশ নিলে নিঃসন্দেহে পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা বিশে^র নামিদামি সব তারকাদের সঙ্গে ড্রেসিংরুম শেয়ার করার পাশাপাশি দলের ক্রান্তিলগ্নে কিভাবে ম্যাচ জিতিয়ে আনা যায় তা আরো ভালোভাবে রপ্ত করতে পারত।

আফ্রিদি ওই অনুষ্ঠানে আরো বলেন, আমি ভারতের বিপক্ষে খেলতে ভালোবাসি। সেখানে আমার অনেক ভক্ত সমর্থক রয়েছে যারা আমাকে অনেক ভালোবাসা দেখিয়েছে। আমি এরই মধ্যে দুদেশের সরকারের উদ্দেশ্যে অনেকবার আর্জি জানিয়েছি যাতে করে ভারতের মাটিতে পাকিস্তান খেলতে যেতে পারে। তবে আমি বিশ^াস করি আকাক্সিক্ষত পাক-ভারত সিরিজ ঠিকই মাঠে গড়াবে।

উল্লেখ্য, সর্বশেষ ২০১৩ সালের জানুয়ারি মাসে পাক-ভারত দ্বিপক্ষীয় সিরিজ অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এরপর আইসিসি ও এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের ইভেন্ট ব্যতীত আর কখনো ক্রিকেটের দুই পরাশক্তি ভারত-পাকিস্তানকে মুখোমুখি হতে দেখিনি ক্রিকেট বিশ্ব।

এসআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়