স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানের সক্ষমতা বৃদ্ধিকরণ

আগের সংবাদ

প্রসঙ্গ মুক্তিযোদ্ধের রাষ্ট্রীয় সম্মান

পরের সংবাদ

মেসির স্ত্রীর মন খারাপ

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২০ , ৫:৫৮ অপরাহ্ণ আপডেট: সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২০ , ৫:৫৮ অপরাহ্ণ

শত চেস্টার পরও বার্সেলোনায় আরো ১ মৌসুমে জন্য থাকতে পারেননি উরুগুইয়ান সুপারস্টার লুইস সুয়ারেজ। ৬ মৌসুম স্বপ্নের বার্সায় কাটানোর পর তাকে শেষ পর্যন্ত ক্লাব ছাড়তে হয়েছে। বর্তমানে ২ মৌসুমের জন্য স্পেনেরই আরেক ক্লাব ও বার্সার চির প্রতিদ্বন্ধী অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদে গেছেন সুয়ারেজ। এখন সেখানেই আবার নতুন করে সবকিছু শুরু করবেন তিনি।

সুয়ারেজ যখন বার্সায় ছিলেন তখন তার সঙ্গে বেশ সখ্যতা গড়ে উঠে অধিনায়ক লিওনেল মেসির। তাদের মধ্যে বন্ধুত্বের গাঢ়তা এতোই বেশি ছিল যে যখনই তারা ঘোরার জন্য সময় পেতেন তখনই একসঙ্গে ঘুরতে যেতেন। আর একে অপরের বাসায় তো দুইজনের আসা যাওয়া ছিলই। কারণ তারা মাত্র ১ মিনিটের দূরত্বে বসবাস করতেন।

আর মেসি ও সুয়ারেজের এই বন্ধুত্বের কারণে মেসির স্ত্রী আন্তোনেলা রোকুজ্জো ও সুয়ারেজের স্ত্রী সোফি বালবির মধ্যেও ভালো বন্ধুত্ব তৈরি হয়েছিল। তাদের স্বামীরা যখন একসঙ্গে মাঠ দাপিয়ে বেড়াতেন তখন এই দুইজন একসঙ্গে গ্যালারিতে বসে তাদের স্বামীদের উৎসাহ দিতেন। তাছাড়া একসঙ্গে শপিংয়ে যাওয়া তাদের জন্য ছিল সাধারণ ঘটনা। রোকুজ্জোর সঙ্গে ৬ বছরের বন্ধুত্ব ছিল বালবির। তবে ভাগ্যের নিমর্ম পরিহাসে এখন তাদের আলাদা হয়ে যেতে হয়েছে। গত মৌসুমেও তারা ভাবেননি তাদের নতুন মৌসুমের আগে আলাদা হয়ে যেতে হবে। কারণ বার্সার সঙ্গে সুয়ারেজর আরো ১ মৌসুমের চুক্তি ছিল। এমনকি গুঞ্জন ছিল সুয়ারেজের সঙ্গে চুক্তি বাড়াবে বার্সা। কিন্তু বার্সার নতুন কোচ রোনাল্ড কোম্যান দায়িত্ব নিয়ে সবকিছু উলট পালট করে দিয়েছেন। তিনি সুয়ারেজকে বিদায় করে দিয়েছেন।

মেসির স্ত্রী আন্তোনেলা রোকুজ্জো ও সুয়ারেজের স্ত্রী সোফি বালবি

আর সুয়ারেজের বিদায়ের সঙ্গে সঙ্গে এখন রোকুজ্জোর কাছ থেকে দূরে চলে গেছেন সোফি বালবি। আর এই কারণে বেশ মন খারাপ মেসির স্ত্রী আন্তোনেলা রোকুজ্জোর। তিনি যেন কিছুতেই মানতে পারছেন না বালবির সঙ্গে তার আর ঘন ঘন দেখা হবে না। নিজের মন খারাপের কথা জানিয়ে ইনস্টাগ্রামে একটি পোস্ট করেছেন রোকুজ্জো। ইনস্টাগ্রামে রোকুজ্জো বলেন, ‘বোলো আমার বন্ধু, আমার বোন। ধন্যবাদ এতো গুলো বছর একসঙ্গে থাকার জন্য। আরো ধন্যবাদ জানাই সেই সুন্দর মূহুর্তগুলোর জন্য, সুন্দর কথাবার্তাগুলোর জন্য। তুমি ছিলে আমার পরিবারের মতো। আমি বলতে পারছি না ঠিক কতোটা মিস করবো আমি তোমাকে ও তোমার পরিবারকে। সব কিছুর জন্য ধন্যবাদ। আশা করি একসঙ্গে আরো মজার ও অসাধারণ সময় কাটানোর সময় পাবো আমরা। আমি নিশ্চিত খুব দ্রুতই আবার এক হব আমরা। আমি তোমাকে ও তোমার পরিবারকে ভালোবাসি। তোমাদের জীবনের নতুন ধাপে তোমাদের জন্য শুভকামনা করছি।’

এসএইচ

মন্তব্য করুন

যে মন্তব্যগুলো খবরের বিষয়বস্তুর সাথে মিল আছে এবং আপত্তিজনক হবে না সেই মন্তব্যগুলোই দেখানো হবে। প্রকাশিত মন্তগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত। পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য ভোরের কাগজ লাইভ কোন দায়ভার গ্রহণ করবে না।

জনপ্রিয়