যে সড়কে পায়ে হাঁটাও দুঃসাধ্য

আগের সংবাদ

সিংহের লেজ নিয়ে নাড়াচাড়া করবেন না, ট্রাম্পকে ইরান

পরের সংবাদ

ব্যবহৃত কনডম নিয়ে আজব জালিয়াতি, হতবাক পুলিশ

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২০ , ৪:৫৬ অপরাহ্ণ আপডেট: সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২০ , ৪:৫৬ অপরাহ্ণ

চাল, ডাল, তেল, আটা এসব খাদ্যবস্তুর সঙ্গে ভেজাল মিশিয়ে বিক্রি নতুন কিছু নয়। কিন্তু এবার প্রকাশ্যে এসেছে অবাক করা জালিয়াতি। অভিযোগ, ব্যবহার করা কনডম ধুয়ে, শুকিয়ে ফের প্যাকেটে ভরে বাজারে দিব্বি বিক্রি করা হচ্ছে।

ব্যবহৃত কনডম ধুয়ে ফের বাজারে বিক্রি করার অভিযোগ পেয়ে মঙ্গলবার ভিয়েতনাম পুলিশ একটি অভিযান চালায়। আর তাতেই চোখ কপালে ওঠে পুলিশের। ভিয়েতনামের সরকারি সংবাদমাধ্যম ভিটিভি জানিয়েছে, একটি গুদামঘর থেকে প্রচুর পরিমাণে ব্যবহৃত কনডম পাওয়া গিয়েছে। ভিয়েতনামের দক্ষিণ বিন দুয়ং প্রদেশের ওই গুদামঘরে বড় বড় ব্যাগে ভরা ছিল ওই সব কনডম। কয়েক ডজন বড় ব্যাগ বাজেয়াপ্ত করেছে পুলিশ। বিন দুয়ং পুলিশ জানিয়েছে, বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে মোট ৩৬০ কেজি কনডম। এতে রয়েছে মোট ৩ লক্ষ ৪৫ হাজার কনডম। এই ঘটনায় এক মহিলাকেও আটক করেছে পুলিশ। জেরায় তিনিই জানিয়েছেন এই আজব জালিয়াতির কথা। ওই মহিলা জানান, প্রথম গরম জলে ধুয়ে নেওয়া হয় ব্যবহার করা কনডম। এর পর তা শুকিয়ে বিক্রয় যোগ্য করে তোলা হয়। এর জন্য তিনি প্রতি কেজিতে ০.১৭ মার্কিন ডলার পান তিনি।

গোয়েন্দারা জানিয়েছেন, ইতিমধ্যেই বাজারে বহু ব্যবহৃত কনডম বিক্রি করে ফেলেছে এই জালিয়াত চক্র। তবে সেই পরিমাণ কত, তা এখনও জানা যায়নি। শুধু দেশীয় বাজারে বিক্রি নয়, এই ব্যবহৃত কনডম বিশ্বের অন্য দেশেও রপ্তানি করা হয়েছে কি না, তাও খতিয়ে দেখছেন তদন্তকারীর। উল্লেখ্য, করোনা ভাইরাসের দাপটে বিশ্বে মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজারের পাশাপাশি ওষুধের দোকানে কনডমেরও অভাব দেখা দিয়েছিল। এখন অনেকটাই সামলে ওঠা গেলেও, অতিরিক্ত মুনাফার লোভে ব্যবহৃত কনডম ধুয়ে ফের বাজারে বিক্রি করার কাজ শুরু করে থাকতে পারে ওই চক্র বলেও আশঙ্কা করছেন তদন্তকারীরা।

এসএইচ

মন্তব্য করুন

যে মন্তব্যগুলো খবরের বিষয়বস্তুর সাথে মিল আছে এবং আপত্তিজনক হবে না সেই মন্তব্যগুলোই দেখানো হবে। প্রকাশিত মন্তগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত। পাঠকের কোন মন্তব্যের জন্য ভোরের কাগজ লাইভ কোন দায়ভার গ্রহণ করবে না।

জনপ্রিয়