শুরুতে হ্যাটট্রিক করে লাল রঙে রঞ্জিত দুই লাল জার্সিধারী

আগের সংবাদ

চাপে স্থবির সড়ক আইন

পরের সংবাদ

মুম্বাইকে হারিয়ে জয়ে শুরু চেন্নাইয়ের

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২০, ২০২০ , ১:০৪ পূর্বাহ্ণ আপডেট: সেপ্টেম্বর ২০, ২০২০ , ১:০৪ পূর্বাহ্ণ

ক্রিকেটপ্রেমীদের অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে শনিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) সংযুক্ত আরব আমিরাতে শুরু হয়েছে বিশ্ব ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ আইপিএল। আর প্রথমদিনেই মুখোমুখি হয় দুই শক্তিধর দল মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স ও চেন্নাই সুপার কিংস।

উদ্বোধনী দিনে ধোনির দলকে ১৬৩ রানের টার্গেট দেয় রোহিতের মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। জবাবে রাইডু ও ফাক ডুপ্লেসিসের ব্যাটে ভর করে ৫ উইকেটে জিতেছে চেন্নাই। অবশ্য শুরুটা তাদের জন্য এতটা সহজ ছিল না।
১৬৩ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে শুরুতেই মাত্র ৬ রানে শেন ওয়াটসন এবং বিজয় মুরালি উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায় চেন্নাই সুপার কিংস। সেখান থেকে দলের হাল ধরেন রাইডু এবং ফাফ ডু প্লেসিস।

এ দুই ব্যাটসম্যান তৃতীয় উইকেটে ১১৫ রানের পার্টনারশিপ গড়ে তোলেন। ৪৮ বলে ৭১ রান করে সাজঘরে ফিরেন রাইডু। তার ইনিংসে ৬টি চার এবং ৩টি ছক্কার মার ছিল। রাইডু ফিরে গেলে দলের হাল ধরেন ফাফ ডু প্লেসিস। ৪৪ বল মোকাবেলা করে অপরাজিত ৫৮ রান করেন তিনি।

টস জিতে চেন্নাই অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি মুম্বাইকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানায়। ব্যাট করতে নেমে উড়ন্ত সূচনা করে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। রোহিত শর্মা আর কুইন্টন ডি কক ২৮ বলের উদ্বোধনী জুটিতে তুলেন ৪৬ রান। তবে দারুণ সূচনা করলেও শেষটা ভালো হয়নি বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের। উদ্বোধনী জুটিতে রোহিত শর্মা ও ডি কক ৪.৪ ওভারে ৪৬ রান তোলে বড় সংগ্রহের পূর্বাভাস দিয়েছিলেন।

অধিনায়ক রোহিত ১০ বলে ১২ রানে সাজ ঘরে ফিরলেও ডি কক অন্যপ্রান্ত ধরে খেলে ২০ বলে ৩৩ রান করেন। তার ইনিংসে ৫টি বাউন্ডারির মার ছিল। ৪৮ রানে ২ উইকেট হারিয়ে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স চাপে পড়লে তৃতীয় উইকেটে সূর্যকুমার যাদবকে নিয়ে অবশ্য সেই ধাক্কা অনেকটাই সামলে নিয়েছিলেন সৌরভ তিওয়ারি। একটা সময় ৩ উইকেটে ১২১ রান ছিল মুম্বাইয়ের। কিন্তু ১৫তম ওভারে এসে ফের জোড়া ধাক্কা। এক ওভারেই রবীন্দ্র জাদেজার শিকার দুই ব্যাটসম্যান।

ভারতীয় এই স্পিনারের ঘূর্ণিতে ৩১ বলে ৩ বাউন্ডারি আর ১ ছক্কায় ৪২ রান করে সৌরভ ফেরেন ডু প্লেসিসের ক্যাচ হয়ে। তিন বল পর আউট হন বড় ২ ছক্কা হাঁকিয়ে ১০ বলে ১৪ রান করা হার্দিক পান্ডিয়াও। এরপর মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের অন্য ব্যাটসম্যানরা ছিল আসা-যাওয়ার মিছিলে। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেটে ১৬২ রানেই থামতে হয়েছে চারবারের আইপিএল চ্যাম্পিয়নদের। ম্যাচসেরা হন চেন্নাই সুপার কিংসের শ্যাম কুরান।

এনএম

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়