কুড়িগ্রামে বাড়ছে পানি, বিপদসীমার ওপরে ধরলা

আগের সংবাদ

কবে নিশ্চয়তা পাবে জিনিয়ারা?

পরের সংবাদ

মিনিটে ১৫ লাখ টাকা নিয়েছেন বেল!

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২০ , ৯:০৫ অপরাহ্ণ আপডেট: সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২০ , ৯:০৫ অপরাহ্ণ

রিয়াল মাদ্রিদের কোচ জিনেদিন জিদান গত ২০১৯-২০ মৌসুম শুরুর আগে গ্যারেথ বেলকে জানিয়েছিলেন যে তার পরিকল্পনায় নেই তিনি। আর এর ফলে বেল চেয়েছিলেন রিয়াল মাদ্রিদ ছেড়ে অন্য কোনো ক্লাবে যোগ দেবেন। এমনকি চীনের একটি ক্লাবের সঙ্গে কথা প্রায় পাকাও করে ফেলেছিলেন তিনি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত রিয়াল মাদ্রিদের কর্তারা তাকে আটকান। তবে তাকে দলে রেখে দিলেও কোচ জিনেদিন জিদান বেলকে খেলার সুযোগ দেননি।

২০১৯-২০ পুরো মৌসুমে সব মিলিয়ে ১ হাজার ২৬০ মিনিট খেলেন তিনি। বেলকে কোচ জিদান সাইড বেঞ্চে বসিয়ে রাখলেও তাকে প্রতি সপ্তাহে চুক্তি অনুযায়ী ৫ লাখ ইউরো ঠিকই দিয়ে যেতে হয়েছে রিয়াল মাদ্রিদকে। ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম ডেইলি মেইল এমন একটি হিসাব প্রকাশ করেছে। আর তারা হিসাব করে দেখেছে বেলকে প্রতি মিনিটের জন্য ১৩ হাজার ১১৭ ইউরো করে দিতে হয়েছে রিয়াল মাদ্রিদকে। বাংলাদেশি টাকায় যা দাঁড়ায় ১৫ লাখের মতো।

গত মৌসুমে বেল সব মিলিয়ে রিয়ালের হয়ে মোট ২০টি ম্যাচে খেলার সুযোগ পেয়েছেন। এই ২০টি ম্যাচের মধ্যে ১৬টি ছিল লা লিগায়। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ছিল ৩টি ম্যাচ। আর কোপা দেল রের একটি ম্যাচ খেলেছেন তিনি। আর এতে দেখা যাচ্ছে রিয়াল মাদ্রিদ গত মৌসুমে যতগুলো ম্যাচ খেলেছে তার ৩ ভাগের ১ ভাগের চেয়েও কম ম্যাচে সুযোগ পেয়েছেন বেল।

তবে ভালো খবর হলো বেলের পেছনে রিয়াল যে বিশাল পরিমাণ টাকা খরচ করত তা থেকে রেহাই পেতে যাচ্ছে তারা। কারণ বেলকে এক বছরের জন্য তার সাবেক ক্লাব টটেনহ্যামে পাঠিয়ে দিচ্ছে তারা। আর তাকে লোনে পাঠানোর কারণে তারা উল্টো টটেনহ্যামের কাছ থেকে টাকা পাবে। টটেনহ্যামের সঙ্গে কয়েক দিনের মধ্যেই চুক্তি সেরে ফেলবে রিয়াল মাদ্রিদ। ফলে আর কদিন পর থেকে বেলকে দেখা যাবে ফের প্রিমিয়ার লিগ মাতাচ্ছেন। যদিও জিদান যদি চাইতেন তাহলে বেলকে তিনি কাজে লাগাতে পারতেন। কারণ বেল গত মৌসুমে যখনই খেলার সুযোগ পেয়েছেন তখনই বেশ ভালো পারফরমেন্স দেখিয়েছেন। তিনি গত মৌসুমে ২০টি ম্যাচ খেলে ৩টি গোল করেছেন।

রিয়াল মাদ্রিদ ছাড়ায় বেল এখন নিজেকে আবার নতুন করে চেনাতে পারবেন। টটেনহ্যামে তাকে নিয়ে আসছেন হোসে মরিনহো। আর তাকে টটেনহ্যামের মূল কারিগর হিসেবেই দেখছেন মরিনহো। ফলে এই মৌসুমটি বেলের জন্য বেশ গুরুত্বপূর্ণ।

এসএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়