কৃষক যাবেন কোথায়?

আগের সংবাদ

এখনো সবুজ সংকেত পায়নি বিসিবি

পরের সংবাদ

এটিইউ ও র‌্যাবের অভিযান

ফেইসবুক ব্যবহার করে জঙ্গি কার্যক্রম, গ্রেপ্তার ২

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২০ , ৯:২১ অপরাহ্ণ আপডেট: সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২০ , ৯:২১ অপরাহ্ণ

রাজধানীতে পৃথক ঘটনায় নিষিদ্ধঘোষিত জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলামের দুই সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তারা হলেন- মো. কিরন হোসেন (২৭) ও আবু সায়েম ওরফে সিফাত (২৬)। গতকাল বৃহস্পতিবার পুলিশের এন্টি টেররিজম ইউনিট (এটিইউ) ও র‌্যাব বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেন।

এটিইউ এর পুলিশ সুপার মিডিয়া অ্যান্ড অ্যাওয়ারনেস মোহাম্মদ আসলাম খান বলেন, গত বুধবার রাতে গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে রাজধানীর ভাটারা থানাধীন প্রগতি সরণি থেকে আনসার আল ইসলামের সক্রিয় সদস্য মো. কিরন হোসেনকে গ্রেপ্তার করা হয়। সে সময় তার দেহ তল্লাশি করে একটি মোবাইল সেট ও দুটি সিম পাওয়া যায়। গ্রেপ্তারকৃতকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, ফেইসবুক আইডি ব্যবহার করে আনসার আল ইসলামের কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছিলেন তিনি। তিনি বিভিন্ন সময়ে জঙ্গী সংক্রান্ত মতবাদ প্রচার,অস্ত্র চালনা প্রশিক্ষণ, আক্রমনের জন্য শারীরিক শিক্ষা, বিভিন্ন জিহাদী পোস্টে লাইক, কমেন্ট ও শেয়ার করে জিহাদী কার্যক্রমে উৎসাহ দেয়া ছাড়াও জিহাদের প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন।

এদিকে র‌্যাব-২ এর সিনিয়র এএসপি আবদুল্লাহ আল মামুন গতকাল বলেন, এক সপ্তাহ আগে গত বৃহস্পতিবার আনসার আল ইসলামের চারজন শীর্ষ জঙ্গীকে গ্রেপ্তারের পর জিজ্ঞাসাবাদে পলাতক সহযোগীদের নাম ও ঠিকানা এবং তাদের পরিকল্পনা উদঘাটনে সক্ষম হয়। এরই ধারাবাহিকতায় গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-২ এর আভিযানিক দল মোহাম্মদপুর থানাধীন শ্যামলী লিংক রোড, বিজিবি বাজারের সামনে থেকে আবু সায়েম ওরফে সিফাতকে আটক করে।

জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, নিষিদ্ধ উগ্র জিহাদী বই প্রচার করে নতুন সদস্যদের দলভুক্ত করার কাজে নিয়োজিত রয়েছেন তিনি। তাদের লক্ষ্য হচ্ছে ধর্মীয় উগ্রবাদী মনোভাব সম্পন্ন যুবকদের জিহাদে উদ্বুদ্ধ করা ও নাশকতা সৃষ্টি করা। তার ল্যাপটপ ও মোবাইল তল্লাশি করে জঙ্গিবাদের সঙ্গে জড়িত থাকার সরাসরি প্রমাণ পাওয়া গেছে।

এসএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়