প্রাতিষ্ঠানিক ইমেইল এড্রেস পাবে ঢাবি শিক্ষার্থীরা

আগের সংবাদ

ঢাকা-৫ এর প্রার্থীদের সঙ্গে ২০ সেপ্টেম্বর বসবে ইসি

পরের সংবাদ

নৌপ্রতিমন্ত্রীর করোনা, সতর্ক বিআইডব্লিউটিএ

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ১৬, ২০২০ , ৬:২৪ অপরাহ্ণ

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরীর করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবরে সতর্ক অবস্থায় রয়েছেন তার শনিবারের সফরসঙ্গীরা। ওই দিন ঢাকা-বরিশাল রুটের নাব্য সংকট সরেজমিন দেখতে যান তিনি। দিনভর প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন সংসদ সদস্য পঙ্কজ দেবনাথ, অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) ও পানি উন্নয়ন বোর্ডের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহগণমাধ্যমকর্মীরা। তাদের মধ্যে অনেকেই এখন করোনা আতঙ্কে ভুগছেন।

নৌমন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম খান বুধবার প্রতিমন্ত্রীর করোনা পরীক্ষার ফলাফল পজেটিভ হওয়ার খবরটি নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বর্তমানে হোম আইসোলেশনে রয়েছেন। যদিও শরীরে কোনো উপসর্গ বা বিশেষ কোনো শারীরিক সমস্যা দেখা দেয়নি।

গত শনিবার সকালে নারায়নগঞ্জ নদীবন্দর থেকে ৪টি স্পিডবোটে করে প্রথমে চাঁদপুর পৌঁছান প্রতিমন্ত্রীসহ অন্যান্যরা। পরে সেখান থেকে বিআইডব্লিউটিএর জাহাজ তিতাসে চড়ে বরিশালের মেহেন্দীগঞ্জ পর্যন্ত যান। এ সময় ইঞ্জিন চালিত নৌকা নিয়ে স্থানীয় নেতাকর্মীরা ব্যাপক শোডাউন করে। জাহাজের সামনে দাঁড়িয়ে খালিদ মাহমুদ চৌধুরী ও পঙ্কজ দেবনাথ নেতাকর্মীদের উদ্দেশে হাত নাড়েন। কখনো বক্তব্যও দেন। পুরো সময় জুড়ে বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান কমোডর গোলাম সাদেকসহ অনেক কর্মকর্তা ও গণমাধ্যমকর্মী তার কাছাকাছি ছিলেন। দুপুরে একই টেবিলে বসে খাওয়া-দাওয়া করেন অনেকে। গতকাল প্রতিমন্ত্রীর করোনা পজেটিভ আসায় এখন অনেকের মধ্যেই আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েক জন জানিয়েছেন, অফিস করলেও পরিবার পরিজনের সঙ্গে সতর্ক দূরত্বে থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তারা। নিশ্চিত হতে করোনা পরীক্ষা করানোর কথাও ভাবছেন কেউ কেউ।

এ প্রসঙ্গে বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান কমোডর গোলাম সাদেক বলেন, সেদিন যারা প্রতিমন্ত্রীর কাছাকাছি ছিলেন তাদের সবাইকে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে। তারা যেন ঠিকমতো মাস্ক পড়ে ও অন্যদের কাছ থেকে নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখে।

এদিকে, লক্ষণ প্রকাশের পরই প্রতিমন্ত্রী আইসোলেশনে চলে যান বলে জানিয়েছে তার ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র। জানা যায়, শনিবার রাতে বাড়ি ফেরার পথে তিনি সামান্য জ্বর অনুভব করেন। এরপর আর অফিস করেননি তিনি। নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখেছেন অন্যদের কাছ থেকেও। পরে বাসায় এসে স্বাস্থ্যকর্মীরা নমুনা নিয়ে গেলে তার করোনা ধরা পড়ে ।

পিআর