সাদেক বাচ্চুর জন্য শোকগাথা

আগের সংবাদ

কোচ পেয়ে উজ্জীবিত টাইগাররা

পরের সংবাদ

ম্যাচ হেরে দাঙ্গা-হাঙ্গামায় জড়াল পিএসজি

কাগজ ডেস্ক:

প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২০ , ১১:৩৭ পূর্বাহ্ণ

এক ম্যাচে ১৭ লাল-হলুদ কার্ড

গত মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে খেলার পর থেকেই যেন খেই হারিয়ে ফেলেছে ফরাসি জায়ান্ট পিএসজি। ফরাসি লিগ ওয়ানে বড় তারকাদের ছাড়া খেলতে নেমে প্রথম ম্যাচে হেরেছিল তারা। গতকাল নেইমার ও ডি মারিয়াকে নিয়ে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে খেলতে নামে প্যারিসের দলটি। কিন্তু তাদের নিয়েও গতকাল মার্শেইয়ের বিপক্ষে ১-০ গোলে হেরে গেছে লিগ ওয়ানের চ্যাম্পিয়নরা। ম্যাচের ৩১ মিনিটের সময় ফ্লোরিয়ান থাউবিনের গোলটিই মার্শেইকে জয় পেতে সহায়তা করে।

তবে ম্যাচটি যখন শেষ হতে আর মাত্র কয়েক সেকেন্ড বাকি ঠিক তখনই দাঙ্গা হাঙ্গামায় জড়ায় পিএসজি ও মার্শেইয়ের খেলোয়াড়রা। দুদলের মধ্যে এই মারামারির ঘটনার সূত্রপাত হয় মার্শেইয়ের বেনেদেত্তো পিএসজির পারেদেসকে ধাক্কা মারলে। বেনেদেত্তে তাকে ধাক্কা দিলেও পারেদেস তাকে ঘুষি মারেন। আর এরপরই দুদলের অন্য খেলোয়াড়রা একে অপরকে ঘুষি, লাথি, চড়, থাপ্পর মারতে শুরু করেন। রেফারি এসে খেলোয়াড়দের মারামারি থেকে নিবৃত্ত করেন। আর এই মারামারিতে জড়ানোর কারণে ম্যাচ রেফারি পিএসজির ৩ জন ও মার্শেইয়ের ২ জন খেলোয়াড়কে লাল কার্ড দেখান। এরমধ্যে ছিলেন পিএসজির সেরা খেলোয়াড় নেইমারও।

এমনিতেই লিগে প্রথম ম্যাচ হেরে মাথা গরম পিএসজির। তার ওপর টানা দ্বিতীয় ম্যাচে তাদের হারের স্বাদ পেতে যাচ্ছিল তারা। ফলে তাদের মাথা আরো গরম ছিল। আর অল্প ছুতা পেয়েই তারা মারামারিতে জড়িয়ে পড়ে। আর সেই মারামারি বড় আকারে রূপ নেয়। এ ম্যাচে দুই দলের খেলোয়াড়দেরকে ১৭টি লাল কার্ড ও হলুদ কার্ড প্রদর্শন করতে হয় রেফারিকে। যা লিগ ওয়ানের ইতিহাসে প্রথম।

এদিকে পিএসজির বিপক্ষে ১-০ গোলের জয় তুলে নেয়ার মাধ্যমে ২০১১ সালের পর পিএসজির বিপক্ষে প্রথম জয় পাওয়ার স্বাদ পেয়েছে মার্শেই। ২০১১ সাল থেকে এই ২০২০ সাল পর্যন্ত পিএসজির বিপক্ষে আরো ১৬টি ম্যাচ খেলেছে মার্শেই। এই ১৬ বারের মধ্যে ১৩ বারই ফরাসি জায়ান্টদের বিপক্ষে হেরেছে তারা। অন্যদিকে বাকি ৩টি ম্যাচে ড্র করেছে।

মার্শেইয়ের বিপক্ষে হারার আগে লঁসের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে ১-০ গোলের ব্যবধানে হেরেছিল পিএসজি। আর টানা ২টি ম্যাচে কোনো গোল না করে হেরে নিজেদের পুরনো একটি লজ্জা আবার নতুন করে সামনে এনেছে পিএসজি। নেইমারের দল সেই ১৯৭৮-৭৯ মৌসুমে লিগ ওয়ানে প্রথম দুটি ম্যাচে কোনো গোল না করে হেরেছিল। এরপর আর তাদের এমন হয়নি। উল্টো দিনে দিনে তারা আরো শক্তিশালী ক্লাবে পরিণত হয়েছে। আর বর্তমানে তো লিগ ওয়ানে পিএসজি একচ্ছত্র আধিপত্য দেখাচ্ছে।

সেখানে তারা প্রথম দুটি ম্যাচের মধ্যে দুটিতেই হেরে বসেছে। অবশ্য পিএসজির এমন দুর্দশার জন্য করোনা ভাইরাসও অনেকটা দায়ী। তাদের ৪ জন খেলোয়াড়কে করোনা ভাইরাস আক্রমণ করে। এরমধ্যে নেইমার ও ডি মারিয়া সুস্থ হয়ে উঠলেও গোলরক্ষক ও এমবাপ্পে এখনো সুস্থ হননি। ফলে তারা এখনো মাঠে নামতে পারেননি। আর তাদের অভাবটাই টের পেয়েছে পিএসজি।

এমআই