অভিযানের পর পেঁয়াজের কেজি নামলো ৫০ টাকায়

আগের সংবাদ

মান্দা উপজেলা পরিষদ উপনির্বাচন ২০ অক্টোবর

পরের সংবাদ

বাউফলে ভুল চিকিৎসায় প্রসূতি মৃত্যুর অভিযোগ

বাউফল(পটুয়াখালী) প্রতিনিধি 

প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২০ , ৬:১৬ অপরাহ্ণ

বাউফলে সেবা ক্লিনিকে অনভিজ্ঞ ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় নীপা দাস (২৩) নামের এক প্রসূতির মৃুত্যুর অভিযোগ উঠেছে। মৃত নীপা উপজেলার সূর্যমনি ইউনিয়নের গাজিমাঝি গ্রামের সুজন দাসের স্ত্রী। সোমবার (১৪ আগস্ট) রাতে ওই ক্লিনিকে নীপার সিজার অপারেশন হয়েছিল।
নীপার স্বামী সুজন দাস জানায়, তিন বছর আগে সে উপজেলার কালাইয়া ইউনিয়নের লঞ্চঘাট এলাকার হরে কৃষ্ণ দাসের মেয়ে নীপাকে বিয়ে করেন। সন্তানসম্ভবা হওয়ার পর সোমবার (১৪ আগস্ট) প্রসব বেদনা উঠলে দুপুরের দিকে নীপাকে বাউফল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে সেবা ক্লিনিকে নেয়া হয়। সেখানে সন্ধা সাতটার দিকে ডা. নয়ন সরকার এ্যানেস্থেসিয়া প্রয়োগ করেন এবং তার স্ত্রী ডা. পূজা ভান্ডারীসহ নীপার সিজার অপারেশন করেন। অপারেশনে নীপা পুত্র সন্তানের মা হলেও রাত চারটা পর্যন্ত তার জ্ঞান ফেরেনি। এসময় কোন ডাক্তারও ছিলেন না। ভোররাতে নীপার শরীর নিথর অবস্থা দেখলে এক নার্স বিষয়টি ডা. নয়নকে জানালে তার পরামর্শ মোতাবেক আজ মঙ্গলবার সকালে ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ কৌশলে নীপাকে একটি এ্যম্বুুলেন্সে উঠিয়ে বরিশাল শের ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পাঠিয়ে দেন। নীপার শরীর নিথর দেখে পথিমধ্যে দুমকি উপজেলার লুথার‌্যান হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানকার ডাক্তার অনেক আগেই নীপার মৃত্যু হয়েছে বলে জানান। এরপরেও নীপাকে বরিশাল শের ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে সেখানকার ডাক্তারও অনেক আগেই নীপা মারা গেছে বলে জানায়।
নীপার স্বামী সুজন দাস অভিযোগ করেন, ডাক্তারদের সম্পূর্ণ অবহেলার কারণেই নীপা মারা গেছে। এবিষয়ে তিনি কোন মামলা মোকদ্দমার ঝামেলায় যাবেন না বলেও জানান। তবে তিনি এর বিচার চান।

বাউফল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান জানান, এবিষয়ে এখনো কোন অভিযোগ পাইনি।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এক চিকিৎসক জানান, হাসপাতালে সিজার অপারেশনের জন্য ভাল ব্যবস্থা রয়েছে। কিন্তু দালালদের দৌড়ত্বে রোগিরা ক্লিনিকে যাচ্ছেন। এছাড়া ডাক্তার নয়ন সরকার করোনাকালিন সময়ে পটুয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের জন্য সহকারী সার্জন পদে নিয়োগ পেয়েছেন। তার সিজার করার অভিজ্ঞতা নেই।
পটুয়াখালী জেলা সিভিল সার্জন মো. জাহাঙ্গীর আলম জানান, ডা. নয়নের এ্যানেস্থেসিয়ার কোর্স করা আছে কিনা সেটা আমার জানা নেই। তবে আমি বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেব। বাউফল উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পণা কর্মকর্তা ডা. প্রশান্ত কুমার সাহা জানান, ডা. নয়নের এ্যানেস্থেসিয়ার অভিজ্ঞতা নেই।

ডিসি