মার্টিনেজকে নিয়ে কাড়াকাড়ির অবসান

আগের সংবাদ

আয়ে শীর্ষে মেসি দ্বিতীয় স্থানে রোনালদো

পরের সংবাদ

অনুশীলনে ব্যস্ত টাইগাররা

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২০ , ১০:৩৯ অপরাহ্ণ

টাইগারদের শ্রীলঙ্কা সফর নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিলেও থেমে নেই তামিম-মুশফিকদের অনুশীলন। হোম অব ক্রিকেট মিরপুরে আজ অনুশীলন করেছেন তামিম ইকবাল, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মুশফিকুর রহিম, তাইজুল ইসলাম, ইমরুল কায়েস, সৌম্য সরকার, লিটন দাস, মুমিনুল হক, সাদমান ইসলাম, মেহেদি হাসান মিরাজ ও আমিনুল ইসলাম বিপ্লব। ক্রিকেটারদের সঙ্গে ছিলেন ৪ বিদেশি কোচ। লঙ্কান স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় কঠোর নিয়মনীতি এঁটে দিয়েছে। ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনই শুধু নয় বাংলাদেশ থেকে ক্রিকেটারের বাইরে চিকিৎসক এমনকি বল বয়, ম্যাসাজম্যান ও আলাদা সাপোর্টিং স্টাফও নিয়ে যাওয়া যাবে না। আবার শ্রীলঙ্কাও কোনো বল কিংবা ম্যাসাজ বয় সরবরাহ করবে না। এমন কঠোরতম শর্ত মানবে বলেই বিসিবি নিজেদের অবস্থান ব্যাখ্যা করেছে। তবে সফর বাতিলের ঘোষণা করেনি তারা।

বরং চেষ্টা চলছে সফর যাতে হয়। লঙ্কান ক্রীড়ামন্ত্রী স্বয়ং তাদের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে কঠোর নীতি ও মানসিকতা পাল্টে কোয়ারেন্টাইন বিষয়ে নমনীয় হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। তাতে করে বিসিবিও দেখছে আশার আলো। বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান, সিইও নিজামউদ্দীন চৌধুরী সুজনসহ শীর্ষ কর্মকর্তাদেরও ধারণা, শেষ পর্যন্ত লঙ্কানরা নমনীয় হবেন এবং কঠোর অবস্থা থেকে সরে এসে একটা গ্রহণযোগ্য সমাধানে ব্রতী হবেন।
বাংলাদেশ টেস্ট দল বিশেষ করে টেস্ট ক্রিকেটে নিয়মিত মুখ বাঁ-হাতি স্পিনার তাইজুল ইসলাম। ২৯ টেস্টের বিপরীতে মাত্র ৯টি ওয়ানডে ও ২টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন ২৮ বছর এই স্পিনার। সম্প্রতি তাইজুলের বোলিং অ্যাকশনে বেশ পরিবর্তন লক্ষ্য করা গেছে।

অ্যাকশনে অনেকটাই বর্তমান স্পিন বোলিং কোচ ড্যানিয়েল ভেট্টরির ছায়া খুঁজে পাওয়া যায়। হঠাৎ বোলিং অ্যাকশন পরিবর্তনে সুবিধা করতে পারছেন বলে জানিয়েছেন তাইজুল। তবে দেশের বাইরের কন্ডিশনে ভালো করতে এবং বোলিংয়ে বৈচিত্র্য আনতেই বোলিং অ্যাকশন পরিবর্তন করেছেন তিনি। ভেট্টরিকে দেখে বোলিং অ্যাকশন পরিবর্তন করেননি।

গতকাল তাইজুল জানিয়েছেন, নিজের কথা এবং দেশের কথা চিন্তা করে বোলিং অ্যাকশন পরিবর্তন করেছেন। ঘরের মাটিতে তার বোলিং নিয়ে কোনো সমস্যা ছিল না। তবে দেশের বাইরে সাফল্য পেতে আর তিন ফরম্যাটে উপযোগী বোলিং অ্যাকশন খুঁজে পেতেই নিজের বোলিংয়ে এমন পরিবর্তন করেছেন। আর এতে সহযোগিতা করেছেন ভেট্টরি।

তাইজুল বলেন, আমি উপলব্ধি করেছি যে, ওই বোলিং অ্যাকশনটাতে নির্দিষ্ট জায়গায় বল করা যায়। তবে বোলিংয়ে বৈচিত্র্য থাকে অল্প। কিন্তু সব ফরম্যাট খেলার জন্য বোলিংয়ে যে ধরনের বৈচিত্র্য দরকার সেটা কঠিন হয়ে যায়। যার জন্যই বোলিং অ্যাকশন পরিবর্তন করা। আর বাইরের কন্ডিশনে খেলতে যাব তখন এটা আরো বেশি গুরুত্বপূর্ণ, দেশের জন্য বোলিং অ্যাকশন ঠিক ছিল।

তিনি আরো বলেন, বাইরের দেশে বোলিংয়ের জন্য টপ স্পিনটা গুরুত্বপূর্ণ। আমার আগের অ্যাকশনের টপ স্পিন করাটা কঠিন ছিল। এ জন্যও বোলিং অ্যাকশনটা পরিবর্তন করা। আর ভেট্টরি বলেছেন বর্তমান বোলিং অ্যাকশন দিয়ে তিন ফরম্যাটেই খেলা যাবে। সবাই হয়তো ভাবছে ভেট্টরিকে নকল করছি, আসলে সেটা না। আগের বোলিং অ্যাকশনে বোলিং বৈচিত্র্যের মাত্রাটা কম ছিল। সে জন্যই বোলিং অ্যাকশনটা পরিবর্তন করা। ভেট্টরি আমাকে শুধু পরামর্শ দিয়েছে।’

এদিকে ক্রিকেটাররাও চাচ্ছেন, শ্রীলঙ্কা সফর হোক। বাংলাদেশের অন্যতম সেরা বাঁ-হাতি স্পিনার তাইজুল ইসলাম মুখিয়ে আছেন শ্রীলঙ্কা সফরে মাঠে নামতে। তাইজুল মানছেন, যে কোনো ক্রিকেটারের জন্য দীর্ঘ সময় মাঠের বাইরে থাকা খুব কঠিন।

সেই মার্চের তৃতীয় সপ্তাহের পর আর কোনো খেলা নেই। এখন সময় কাটছে অনুশীলনে, কিন্তু সেটাই যথেষ্ট নয়। নিজেকে ধরে রাখতে আর ছন্দে থাকতে চাই ম্যাচ খেলা। ফিজিক্যাল ট্রেনিং আর নেটে ব্যাটিং-বোলিং দিয়ে তো আর ম্যাচের স্বাদ মিটবে না!

ফর্ম ধরে রাখতে হলে চাই ম্যাচ প্র্যাকটিস এবং ম্যাচ খেলা। শ্রীলঙ্কায় তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ হলে সেই ম্যাচ খেলাটা হবে। এই আশায় প্রহর গুনছেন তাইজুল। তাইতো মুখে এমন আশার বাণী, ‘আসলে আমরা যারা ক্রিকেটার বা যে কোনো ইভেন্টের খেলোয়াড়ই হোক, এতদিন খেলার বাইরে থাকাটা খুব কঠিন। আমরা সবসময় খেলতে পছন্দ করি। সামনে শ্রীলঙ্কা সিরিজ আছে এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ এটা হলে আমরা সবাই আবার মাঠে ফিরতে পারব। আমরা আগের পরিস্থিতিতে ফিরতে পারলে ভালো লাগবে।

এসএইচ