হয়রানির মামলা প্রত্যাহার দাবিতে সাংবাদিকদের সমাবেশ

আগের সংবাদ

আখাউড়া-আগরতলা রেলপথ নির্মাণ কাজ ৫০ ভাগ সম্পন্ন

পরের সংবাদ

সিরিজ জিততে অস্ট্রেলিয়ার দরকার ২৩২ রান

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: সেপ্টেম্বর ১৩, ২০২০ , ১০:২৮ অপরাহ্ণ

টি-টোয়েন্টি সিরিজ হারার পর তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ভালোভাবেই ঘুরে দাঁড়িয়েছে অস্ট্রেলিয়া। আজ দ্বিতীয় ওয়ানডেতে স্বাগতিক ইংল্যান্ডকে ২৩১ রানে আটকে দিয়েছে সফরকারীরা। সহজ এই লক্ষ্য ছুঁতে পারলেই এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ নিশ্চিত করবে অ্যারন ফিঞ্চের দল।

ম্যানচেস্টারে এদিন টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেয় ইংল্যান্ড। শুরুর দিকে একাই রান করছিলেন ওপেনার জেসন রয়। সঙ্গী জনি বেয়ারস্টো পঞ্চম ওভারের প্রথম বলে মিচেল স্টার্কের গতির কাছে পরাস্ত হন। সাতটি বল মোকাবেলা করলেও কোনো রান না করে উইকেটরক্ষকের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন বেয়ারস্টো। এর এক ওভার পরেই ফিরে যান সঙ্গীহীন জেসন রয়। ঝুঁকিপূর্ণ রান নিতে গেলে মার্কাস স্টয়নিসের সরাসরি থ্রো-তে স্ট্যাম্প ভেঙে যায় নন স্ট্রাইকিং প্রান্তের। রান আউট হয়ে ফিরতে হয় ২২ বলে ২১ রান করা রয়কে। যাতে ২৯ রানেই দুই ওপেনারকে হারায় স্বাগতিকরা।

এ দুজনের বিদায়ের পর ইংল্যান্ডের রানের চাকা স্বাভাবিকভাবেই মন্থর হয়ে যায়। জো রুটকে নিয়ে উইকেট আগলে রেখে ইনিংস গড়ার দিকে মনোযোগ দেন অধিনায়ক ইয়ন মরগান। তবে জাম্পা-কামিন্সের দুর্দান্ত বোলিংয়ে রুট-মরগানের জুটি বড় কোনো প্রভাবক হতে পারেনি। ৯৩ বলে গড়া তাদের ৬১ রানের জুটি ভাঙেন লেগ স্পিনার অ্যাডাম জাম্পাই। ৭৩ বলে ৩৯ রান করে আউট হন জো রুট।

নতুন ব্যাটসম্যান জস বাটলার মাত্র ৩ রান করে প্যাট কামিন্সের শিকার হলে ১০৭ রানে চতুর্থ উইকেট হারায় ইংল্যান্ড। এর কিছুক্ষণ পরই মরগানকে দ্বিতীয় শিকারে পরিণত করেন জাম্পা। ৫২ বলে ৪২ রান করে এলবিডব্লিউ হন মরগান। ফলে ২ উইকেটে ৯০ রান থেকে ১১৭ রানে পৌঁছাতে ৫ উইকেট হারিয়ে ফেলে স্বাগতিকরা।

আগের ম্যাচে সেঞ্চুরি হাঁকানো স্যাম বিলিংস ২৮ বলে ৮ রান করে বোল্ড হন সেই জাম্পার লেগ ব্রেকেই। পরের ওভারেই বিদায় নেন স্যাম কারানও। স্টার্কের বলে উইকেটরক্ষকের হাতে ক্যাচ দেন তিনি। আর ক্রিজে থিতু হলেও ইনিংস বড় করতে পারেননি ক্রিস ওকস। ৩৯ বলে ২৬ রান করে জশ হ্যাজলউডের বলে আউট হন তিনি।

১৪৯ রানে অষ্টম উইকেটের পতন ঘটলে ইংল্যান্ডের ২০০ রান অতিক্রম করা নিয়ে শঙ্কা তৈরি হয়। এমন কঠিন পরিস্থিতিতে নবম উইকেটে দলের হাল ধরেন আদিল রশিদ আর টম কারান। দুজন মিলে দলের রানের গতিও বাড়ান। শেষ ওভারে ৩৯ বলে ৩৭ রান করে টম কারান বোল্ড হলে ভাঙে ইনিংস সর্বোচ্চ ৭৬ রানের জুটিটিও। শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে নামা জোফরা আর্চার ২ বলে ৬ রান করে অপরাজিত থাকেন। আর ৩ চার আর ১ ছক্কা হাঁকানো আদিল রশিদ অপরাজিত থাকেন ২৬ বলে ৩৫ রান করে। আদিল আর টমের মহামূল্যবান ওই ইনিংস দুটিতে ভর করে ২৩১ রানে থামে স্বাগতিকরা। অজিদের পক্ষে সর্বোচ্চ তিনটি উইকেট লাভ করেন অ্যাডাম জাম্পা আর স্টার্ক নেন দুটি উইকেট।

এসএইচ