স্বজনদের কাছে মৃতদেহ হস্তান্তর প্রক্রিয়া চলছে

আগের সংবাদ

করোনায় আক্রান্ত আরো এক এমপি

পরের সংবাদ

জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের

পুলিশ ফাঁড়ির সামনেই ব্যবসায়ীকে মারধর

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ৫, ২০২০ , ৪:৪৩ অপরাহ্ণ আপডেট: সেপ্টেম্বর ৫, ২০২০ , ৫:১৬ অপরাহ্ণ

গাজীপুরের কালীগঞ্জে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে মো. মোমেন সরকার নামের এক ফার্নিচার ব্যবসায়ীকে পুলিশ ফাঁড়ির সামনেই মারধর করেন প্রতিপক্ষ। শনিবার (৫ সেপ্টেম্বর) সকালে কালীগঞ্জ থানাধীন নাগরী ইউনিয়নের উলুখোলা পুলিশ ফাঁড়ির সামনে এ ঘটনা ঘটে।

এ ব্যাপারে ওইদিন দুপুরেই হামলার শিকার মোমেন সরকার বাদী হয়ে কালীগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ফাঁড়ির ইনচার্জ (এসআই) রেজাউল করিম।

হামলার শিকার মো. মোমেন সরকার জানান, দীর্ঘদিন যাবৎ উপজেলার নাগরী ইউনিয়নের সেনপাড়া গ্রামের স্বজনদের সঙ্গে জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলছিল। এরই সূত্র ধরে শনিবার সকালে তাকে প্রাণনাশের হুমকি দেয় তার স্বজনরা।

বিষয়টি বাড়ির অদূরে স্থানীয় পুলিশ ফাঁড়িতে জানাতে গেলে প্রতিপক্ষ বাদশা সরকার তার ছেলে মামুন সরকার, রায়হান সরকার ও স্ত্রী সখিনা বেগম এবং তাদের স্বজন মুঞ্জুর হোসেন ফাঁড়ির সামনেই মোমেন সরকারকে পিটিয়ে আহত করেন। এ সময় তাকে বাঁচাতে ছোট ভাই আজিজুল সরকার এগিয়ে আসলে তাকেও মারধর করে প্রতিপক্ষ। পরে পুলিশ ফাঁড়ির কনস্টেবল সাইফুল ইসলাম তাদের রক্ষা করেন।

তিনি আরো জানান, জমি সংক্রান্ত বিরোধের বিষয়টি নাগরী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান সিরাজ মোড়ল ও সদ্য প্রয়াত চেয়ারম্যান কাদির মিয়া এবং বর্তমানে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আব্দুল বারেক নিস্পত্তি করলেও প্রতিপক্ষ তা মানেনি। বরং বাদশা সরকার তার ছেলে মামুনকে দিয়ে বিভিন্ন সময় হত্যার হুমকি দিত।

ফাঁড়ির ইনচার্জ (এসআই) রেজাউল করিম জানান, দীর্ঘদিন ধরে দুই পক্ষের মধ্যে জমি সংক্রান্তের একটি বিরোধ চলছিল। এ ঘটনায় সকালে তাদের মাঝে কথা কাটাকাটি হয়। এ নিয়ে ফাঁড়িতে অভিযোগ দিতে আসলে তাদের মারধর করে। পরে ফাঁড়ি পুলিশের সহায়তায় তা নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। তবে সারারাত ডিউটি শেষে তিনি ওই সময় ঘুমাচ্ছিলেন বলেও জানান তিনি।

এসআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়