১৫ দিনের রিমান্ড শেষে ওসি প্রদীপ কারাগারে

আগের সংবাদ

করোনায় ঝড়ে গেলো আরো এক ব্যাংক কর্মকর্তা

পরের সংবাদ

হতাশা দূর করতে যে নিয়ম মানতে হবে

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১, ২০২০ , ৬:০৬ অপরাহ্ণ আপডেট: সেপ্টেম্বর ১, ২০২০ , ৬:০৬ অপরাহ্ণ

আপনি যদি হতাশাগ্রস্ত হন, তবে একটা কাজ করে দেখতে পারেন। এটা খুবই সহজ কাজ। এতে অন্তত হারানোর কিছু নেই। এ জন্য আপনাকে নিজের মতো করে একটা ফরম পূরণ করতে হবে। ফরমটা হলো—
আমি হতাশ, কারণ: …. .
যদি এমন হতো, তা হলে খুবই ভালো হতো: …….
আমি এতে বাস্তবে যা করতে পারি: …. .
চলুন দেখা যাক, এই ফরমটা কীভাবে একজন মানুষকে ৩ মাসে হতাশা থেকে বাঁচায়।

আমি হতাশ, কারণ:
১. চার মাস থেকে চাকরির খোঁজে, ইন্টারভিউ দিয়েও কোনো চাকরি পাচ্ছি না
২. আমার হাতে কোনো টাকা নেই
৩. আমার বন্ধু অদিত আমাকে তাঁর বাসায় থাকতে ও খেতে দিয়েছিল, সেই শেষ সম্বলও শেষ হয়ে যাচ্ছে ১০ দিনের মধ্যে।

যদি এমন হতো, তা হলে খুবই ভালো হতো:
১. এক সপ্তাহের মধ্যেই যদি চাকরি পেতাম
২. হাতে যদি কিছু টাকা থাকতো

আমি এতে বাস্তবে যা করতে পারি:
১. যে ইন্টারভিউগুলো দিয়েছিলাম, সেগুলোর খবর নিতে পারি
২. কারও কাছে কিছু টাকা ধার চাইতে পারি
৩. আরও বেশি চাকরির আবেদন করতে পারি
আমি এই তালিকা অনুযায়ী কাজ করি। আমার বন্ধু মিজানের কাছে টাকা চাই, আরও বেশি চাকরির আবেদন করি। আগের ইন্টারভিউ দেওয়া চাকরিগুলোর খবর নিই। পাঁচ দিনের মধ্যেই শিকাগোতে আগের ইন্টারভিউ দেওয়া চাকরির অফার লেটার পাই। এতে হতাশার মধ্যে আশার আলো দেখি।

হতাশাগ্রস্তদের জন্য
১. চিন্তা করবেন আপনি কী করতে পারছেন, কখনো চিন্তা করবেন না কী হারিয়েছেন
২. মনে রাখবেন, আপনার হতাশার জন্য অন্যরা দোষী হলেও তাদের দোষারোপ করে হতাশা থেকে মুক্তি পাওয়া যায় না
৩. হতাশা আপনাকে চেষ্টা থেকে বিরত রাখতে পারবে না; আপনার চেষ্টার একটা না একটা পথ খোলা আছেই
৪. নিজের ওপর বিশ্বাস রাখবেন
৫. ব্যস্ত থাকলে হতাশা আপনার মনে স্থান পাবে না
৬. হতাশাগ্রস্ত হয়ে ওপরে বর্ণিত উপায়ে চেষ্টা করেও যদি আপনি জয়ী হতে না পারেন, অন্তত বলতে পারবেন যে এই পদ্ধতি কাজ করে না।

এসএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়