রাজস্ব আদায় লক্ষ্যে চিরুনি অভিযান সফল করার আহ্বান

আগের সংবাদ

নিশাত সালওয়ার নতুন সিনেমা ‘বীরত্ব’

পরের সংবাদ

কলাপাড়ায় খাল দখলের মহোৎসব চলছে

প্রকাশিত: আগস্ট ২৭, ২০২০ , ৭:০১ অপরাহ্ণ আপডেট: আগস্ট ২৭, ২০২০ , ৭:০৩ অপরাহ্ণ

পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার ধানখালী ইউনিয়নে ক্ষমতাসীন দলের প্রভাবশালীদের সঙ্গে আঁতাত করে সরকারি ভাড়ানি খালের দুই পাশে অবৈধভাবে স্থায়ী স্থাপনা তোলার মহোৎসব চলছে। এতে জনসাধারণের চলাচলের ব্যাঘাত ও নব্যতা সংকটে পড়ছে খালটি, হারিয়ে যাচ্ছে খালের প্রকৃত রুপ। অতিদ্রুত এসব অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের দাবি স্থানীয়দের।

সরেজমিনের গিয়ে জানা যায়, ধানখালী ইউনিয়নের ক্ষমতাসীন দলের প্রভাবশালী এক নেতার ছত্রছায়ায় সোমবারের বাজারের পাশ দিয়ে ফুলতলি বাজার পর্যন্ত বয়ে যাওয়া ভাড়ানি খাল নামে সরকারি খালের দু-পাশে একাধিক অবৈধ স্থাপনা রয়েছে। ইউনিয়নের সোমবাড়িয়া বাজার, কোডেক বাজার ও ফুলতলি বাজারের দু-পাশে পুরানো দোকান ঘড়ের পাশাপাশি নতুন করে বিল্ডিং ঘড় তোলার দৃশ্যও চোখে পড়ছে অহরহ। অথচ এসব অবৈধ দোকান ঘর তোলায় নব্যতা সংকটের কারণে হুমকির মুখে পড়ছে খালের পানি প্রবাহ। কৃষিকাজে পানির সংকটসহ বিভিন্ন ধরনের সমস্যায় ভুগছে সাধারণ মানুষ। খাল হারাচ্ছে তার প্রকৃত সৌন্দর্য ও যৌবনত্ত্ব।

ছবি: প্রতিনিধি

সোমবাড়িয়া বাজারের রিয়াজ গাজী, দুলাল জমাদ্দার, জহিরুল মিয়া, কোডেক বাজারের সাত্তার খাঁন ও ফুলতলী বাজারের মাসুম ঢালীসহ একাধিক লোক স্থানীয় ক্ষমতার প্রভাব খাটিয়ে অবৈধভাবে এ ঘরগুলো তুলছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, এখানে যে যার মতো খাল দখল করে দোকান ঘর তুলছে। এগুলো দেখার যেনো কেউ নেই। তাই আমরা কিছুই বলতে পারছি না। এভাবে চলতে থাকলে এ খালটি এক সময় হারিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তাই খালের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে কতৃপক্ষ যথাযথ পদক্ষেপ নিবে বলে স্থানীয়রা প্রত্যাশা করেন।

এ বিষয়ে খাল দখল করে দোকান ঘর মালিক রিয়াজ গাজী ও সাত্তার খাঁনের ছেলে মাসুম খাঁনের সঙ্গে কথা হলে অবৈধ দখলের বিষয়টি তারা অস্বীকার করেন। তাদের মতে, আমরা সরকারি জমিতে ঘর তুলিনি, আমাদের রেকর্ডীয় সম্মত্তিতে ঘর তুলছি। আমাদের কাছে সব ধরনের কাগজ-পত্র রয়েছে।

কলাপাড়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) জগৎবন্ধু মন্ডল বলেন, খাল দখলের বিষয়টি আমার জানা নেই। ওখানকার তফসিলদারের সঙ্গে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবো।

এসআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়