পাঁচ মাসে হারমোনিয়ামের কাছেই যাইনি

আগের সংবাদ

সংসদে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি সংরক্ষণের নির্দেশ

পরের সংবাদ

জন্মদিনে হাসপাতালের বিছানায় ফারুক

প্রকাশিত: আগস্ট ১৮, ২০২০ , ৩:২১ অপরাহ্ণ আপডেট: আগস্ট ১৯, ২০২০ , ৫:২০ অপরাহ্ণ

ঢাকা-১৭ আসনের সংসদ সদস্য ও নায়ক ফারুকের জন্মদিন আজ। এক দিকে বাংলাদেশের চলচ্চিত্র অঙ্গনের প্রবীণ এক অভিনেতা, অপর দিকে একজন সংসদ সদস্য। ভক্ত-শুভাকাঙ্ক্ষীরা তাকে ভালোবেসে ডাকেন ‘মিয়া ভাই’। চলচ্চিত্র পরিচালক, প্রযোজক, ব্যবসায়ী পদবির সঙ্গে যুক্ত হয়েছে সংসদ সদস্য পদটি। শেষ বয়সে এই অভিনেতার জন্মদিনে সবাইকেই তো ব্যস্ত থাকবার কথা উদযাপনে। তবে বিশেষ এ দিনটি ভালো যাচ্ছে না তার। শারীরিক অসুস্থতা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়েছে তাকে।

শরীরে ভীষণ জ্বর নিয়ে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে আছেন তিনি। জানা গেছে, ‘প্রচণ্ড জ্বর নিয়ে গত রবিবার (১৬ আগস্ট) হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। জ্বর কমার কোনও লক্ষণ নেই। দুবার করোনা টেস্ট করা হয়েছে। দুবারই নেগেটিভ ফল এসেছে। সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন এই প্রবীণ অভিনেতা।
একাধিক গণমাধ্যমকে দেয়া সাক্ষাতকার তিনি বলেন, ‘আমি কখনও নিজের জন্মদিন পালন করি না। এর কারণ এই মাসে সপরিবারে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয়েছে। মহান এই মানুষটিকে যে মাসে হারিয়েছি, সে মাসে আনন্দ-উল্লাস করতে আমার মন টানে না। তাই ৭৫-এর পর থেকে এ দিনটি আমি নীরবে কাটাই। অনেকে আমাকে শুভেচ্ছা জানান- এটুকুই।’

১৮ আগস্ট ১৯৪৮ সালে ঢাকায় জন্মগ্রহণ করেন ফারুক। ১৯৭১ সালে এইচ আকবর পরিচালিত ‘জলছবি’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে তার অভিষেক হয়। আবার তোরা মানুষ হ, লাঠিয়াল, সুজন সখী, নয়নমনি, সারেং বৌ, গোলাপী এখন ট্রেনে, সাহেব, আলোর মিছিল, দিন যায় কথা থাকে, মিয়া ভাই-সহ শতাধিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। ‘লাঠিয়াল’ ছবির জন্য তিনি ১৯৭৫ সালে শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতা হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান। আর ২০১৬ সালে আজীবন সম্মাননায় ভূষিত হন। বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের ইতিহাসে সফল নায়কদের অন্যতম ফারুক ২০১৮ সাল থেকে সংসদ সদস্যের দায়িত্ব পালন করছেন।

এমআই

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়