করোনা নিয়ে মানুষ কনফিডেন্স ডেভেলপ করেছে

আগের সংবাদ

মহাখালি ডিএনসিসি মার্কেটকে নগর হাসপাতাল করা হবে

পরের সংবাদ

মোটরসাইকেলের যত্ন নিন সহজেই

সুমাইয়া আহমেদ

প্রকাশিত হয়েছে: আগস্ট ৯, ২০২০ , ৪:৪৩ অপরাহ্ণ

দেশে রাইড শেয়ারিং অ্যাপ চালু হবার পর দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠছে মোটর সাইকেল। করোনার ভেতরও বিক্রি বেড়ে বাহনটির। যেহুতু জ্যাম এড়িয়ে স্বাচ্ছন্দ্যে যোগাযোগের জন বেশ কার্যকর এটি তাই যত্ন চাই নিয়ম মেনে। তাই চলুন জেনে নেই মোটরসাইকেলের কর্মদক্ষতা বাড়ানোর সহজ টিপস।

১. বেসিক লেভেল : বেসিক লেভেলের পরামর্শ গুলো মোটরসাইকেল কেনার প্রথম দিন থেকেই অনুসরণ করা উচিৎ। বেসিক লেভেলের টিপসগুলো নিয়ে প্রথম ভাগে আলোচনা থাকবে এখানে।
২. ভেজালমুক্ত ফুয়েল : সবসময় ভালো মানে ফুয়েল ব্যবহার করুন। একই সাথে ফুয়েল সংগ্রহ করতে হবে স্বনামধন্য ফিলিং স্টেশন থেকে। ভালো জ্বালানি সত্যিকার অর্থেই আপনার মোটরসাইকেলের পারফরম্যান্স বাড়াতে সাহায্য করে।

৩. স্পার্ক প্লাগ : সবসময় পরিষ্কার এবং উন্নত মানের স্পার্ক প্লাগ ব্যবহার করুন। একটি নির্দিষ্ট মেয়াদ পর পর ইলেট্রোড গ্যাপ পরীক্ষা করে দেখুন।
৪. এয়ার ফিল্টার : এয়ার ফিল্টার সবসময় পরিষ্কার এবং শুকনো রাখুন। নিয়মিত বিরতিতে পরিষ্কার করুন। অবশ্যই নষ্ট হওয়ার পূর্বেই বদলে ফেলুন।

৫. ইঞ্জিন ওয়েল: আপনার বাইকের গ্রেড এবং রেটিং দেখে সঠিক ইঞ্জিন ওয়েল ব্যবহার করুন। নির্দিষ্ট মাইলেজের পর নিয়মিত বিরতিতে বদলিয়ে নিন।
৬. চেইন : চেইনে লুবরিক্যান্ট ব্যবহার করুন এবং লিউব ব্যবহারের পূর্বে অবশ্যই ভালভাবে চেইনটি পরিষ্কার করে নিন। চেইনের টাইমিং সমন্বয় করে নিন। চেইনের সাথে এবং চাকার অবস্থানের সাথে সুইং আর্মগুলো ঠিকভাবে সেট আছে কিনা, তা নিয়মিতভাবে পরীক্ষা করে দেখুন।

৭. ব্রেক : ব্রেক মেকানিজমকে সরাসরি কাজ করার সুযোগ দিন। ব্রেক ক্লিপারের সমাবেশ এবং ড্রাম ব্রেকিং মেকানিজমকে শ্রেণীবিন্যাস করে নিন যাতে চাকা ঠিকভাবে ঘুরতে পারে। পাশাপাশি ব্রেককে সমন্বিত করে ক্লাচ ক্যাবলকে মুক্ত রাখুন। টায়ার টায়ারে সবসময় সঠিক মাত্রার এয়ার প্রেসার রাখুন। এটি মোটরসাইকেলের পারফরম্যান্স এবং রাইডারের নিরাপত্তার সাথে সরাসরি সংযুক্ত।
৮. কার্বুরেটর : কার্বুরেটর অথবা ফুয়েল ইনজেকটর এবং থ্রোটল বডিকে পরিষ্কার রাখুন। যদি প্রয়োজন হয় ইসিইউ (ঊঈট) ম্যাপিং আপডেট করাতে পারেন কিন্তু ডিফল্ট সেটিংসকে সবসময়ই সেরা হিসাবে ধরে নেয়া হয়।

এসআর