ওসি প্রদীপসহ ৭ আসামি ৭ দিনের রিমান্ডে

আগের সংবাদ

মাদারীপুরের মিজানুরের বাড়িতে শোকের মাতম

পরের সংবাদ

যে কারণে বিস্ফোরণের পিছনে রাশিয়ার নাম

nakib

প্রকাশিত হয়েছে: আগস্ট ৬, ২০২০ , ৮:৪৩ অপরাহ্ণ

লেবাননের বৈরুত বন্দরে ভয়াবহ বিস্ফোরণের তদন্ত চলছে। ইতোমধ্যে একটি সম্ভাব্য কারণ উৎঘাটন করতে সক্ষম হয়েছে তদন্ত দলের সদস্যরা। স্থানীয় কর্তৃপক্ষের সতর্কতা সত্ত্বেও ব্যাপক রাসায়নিক সার বোঝাই জাহাজটি পর্যাপ্ত নিরাপত্তা না নিয়েই বন্দরে বছরের পর বছর অবস্থান করেছিল।

তদন্ত দলের তথ্যমতে রাশিয়ার মালিকানাধীন একটি জাহাজে ২ হাজার ৭৫০ মেট্রিকটন অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট বোঝাই কার জাহাজটি ২০১৩ সালে বৈরুত বন্দরে পৌছেছিল। এমভি রুশুস নামের জাহাজটি মুজাম্ভিকের উদ্দ্যেশে যাত্রা করেছিল। তবে অর্থ সংকটে জাহাজের রাশিয়ান ও ইউক্রেনের ক্রুদের সাথে অস্থিরতা দেখা দেয় জাহাজে। ফলে জাহাজটি আর গন্তব্যে যেতে পারেনি।

পরবর্তীতে জাহাজটিকে ভাসমান বোমা হিসেবে অভিহিত করে কয়েকবার সতর্ক করার পরও জাহাজটি সেখানেই অবস্থান করে। ৬ বছরের বেশি স্টোরে থাকার পরে ব্যাপক বিস্ফোরণের মুখে ৫ হাজরের বেশি মানুষ আহত হয় এবং মৃত্যু হয়েছে ১৩৭ জনের।

তদন্ত দলের পক্ষ থেকে রাশিয়ার নাম না আসলেও যুক্তরাষ্ট্রের গণমাধ্যম সিএনএনের কাছে রাশিয়ার নামটি ওঠে আসে। এর আগে এ ভয়াবহ বিস্ফোরণকে হামলা হিসেবে অভিহিত করেছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ফলে নতুন করে এ দুর্ঘটনা নিয়ে বিশ্ব রাজনীতি পাল্টা-পাল্টি অবস্থান সৃষ্টি হতে পারে বলে ধারণা করছেন অনেকে।

নকি