ভ‌বিষ্য‌তে ঈদযাত্রা নি‌র্বিঘ্ন কর‌তে নিতে হ‌বে বাড়‌তি উ‌দ্যোগ

আগের সংবাদ

বগুড়ায় নৌকা ডুবে মা-ছেলের মৃত্যু

পরের সংবাদ

গাইবান্ধায় সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি

গাইবান্ধা প্রতিনিধি

প্রকাশিত হয়েছে: আগস্ট ৪, ২০২০ , ১০:৪৫ অপরাহ্ণ

গাইবান্ধায় সব নদীর পানি দ্রুত কমে যাওয়ায় জেলার সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে। আজ মঙ্গলবার বিকাল ৩টা পর্যন্ত একমাত্র ব্রহ্মপুত্রের পানি বিপদসীমার ১৮ সেন্টিমিটার উপরে ছিল। এছাড়া ঘাঘট নদীর পানি বিপদসীমা বরাবর এবং তিস্তা ও করতোয়ার পানি বিপদসীমার অনেক নিচে ছিল। জেলার সুন্দরগঞ্জ, ফুলছড়ি, সাঘাটা ও সদর উপজেলার চরাঞ্চলগুলো থেকে পানি নেমে গেছে। ফলে এসব এলাকার যেসব পরিবার বন্যার কারণে ঘরবাড়ি ছেড়ে বিভিন্ন বাঁধ ও উঁচু স্থানে আশ্রয় নিয়েছিল তাদের অধিকাংশই ইতিমধ্যে ঘরে ফিরে গেছে। বাড়িঘরে পানি থাকায় যারা এখনও ফিরে যেতে পারেনি তারা দুই একদিনের মধ্যে ফিরে যাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বন্যায় সার্বিক ক্ষয়ক্ষতি এখনও চুড়ান্ত নিরূপন করতে পারেনি। তবে ক্ষতির পরিমাণ নিরুপনের কাজ চলছে বলে জানানো হয়েছে। এদিকে কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগ জানিয়েছে, এবারের বন্যায় ৩ হাজার ২৩৬ হেক্টর জমির বিভিন্ন ফসল বন্যার পানিতে নিমজ্জিত হয়েছে। এরমধ্যে ১ হাজার ৯৮ হেক্টর জমির ফসল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ফলে ১২ কোটি ৭২ লাখ টাকার ফসলের ক্ষতির হিসাব তুলে ধরেছে বলে জানানো হয়েছে। এদিকে জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, জেলার ৬টি উপজেলার ৪৫টি ইউনিয়নে ২৬৭টি গ্রাম এবারের বন্যায় প্লাবিত হয়েছে। এতে ২ লাখ ৫২ হাজার ৪১০ ব্যক্তি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এ পর্যন্ত সাম্প্রতিক বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্যে ৬০০ মে. টন চাল, খয়রাতি সাহায্য হিসেবে ১৮ লাখ ৫০ হাজার টাকা, শিশু খাদ্যের জন্য ৪ লাখ টাকা, গো-খাদ্যের ৯ লাখ টাকা বিতরণ করেছে। এছাড়া শুকনো খাবারের প্যাকেট বিতরণ করা হয়েছে ৬ হাজার ৬৫০ প্যাকেট।

ডিসি