শোক-দুর্যোগে বিবর্ণ ঈদ আনন্দ

আগের সংবাদ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে মমতার ঈদ শুভেচ্ছা

পরের সংবাদ

মনমরা ঈদ আনন্দ

রৌমারী(কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি

প্রকাশিত হয়েছে: আগস্ট ১, ২০২০ , ৮:০৪ অপরাহ্ণ

একদিকে করোনা দুর্যোগ, অন্যদিকে ভয়াবহ বন্যা। তারপরও সাধারণ মানুষের মাঝে বইছে মনমরা ঈদ আনন্দ। এই করোনাকালে যেমনটা সামাজিক বা শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখার সরকারি নির্দেশনা থাকলেও সেটি কেউ আমলে নিচ্ছে না স্থলবন্দরে আসা দর্শনার্থীরা। ০১ আগস্ট (শনিবার ) ঈদুল আযহার প্রথম দিন উপজেলার রৌমারী স্থলবন্দরে দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ভিড় দেখা গেলেও নেই আনন্দের ছাপ।

সকাল হতে সন্ধ্যা পর্যন্ত হাজার হাজার মানুষের পদচারণায় মুখরিত হচ্ছে ভারত-বাংলাদেশ স্থলবন্দর। এই স্থলবন্দরটি ভারতের সঙ্গে সংযুক্ত নতুন বন্দর গ্রাম, চান্দার চর। রাস্তা আর ভারতের সন্ধ্যার সার্চলাইট এবং কয়েকটি ব্রিজের সৌন্দর্যে মুখরিত হয় সকাল-সন্ধ্যা।

মাস্ক ছাড়াই ঘুরছে দর্শনার্থীরা

রৌমারী উপজেলার শাপলা মোড় থেকে পূর্ব দিকে ভারত স্থলবন্দর ৪ কি.মি.। কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা যাতে না ঘটে সে জন্য বিজিবি মোতায়েন রয়েছে। ঈদের ছুটিতে রাজধানী থেকে গ্রামের বাড়িতে আসা রৌমারী ও রাজিবপুর উপজেলার মানুষগুলোর অন্যতম প্রধান গন্তব্য হয়ে উঠেছে রৌমারীর ভারত বাংলাদেশ স্থলবন্দর।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধের অংশ হিসেবে যেখানে ঈদের নামাজ ঈদগাহের পরিবর্তে মসজিদে পড়া হয়েছে। সেখানে সামাজিক দূরত্ব বজায় না রেখে মাস্ক ব্যবহার ছাড়াই ঘর থেকে বের হওয়া সচেতন মহলের নিন্দা জানিয়েছে।

চোখে মুখে নেই আনন্দের ছাপ

স্থলবন্দরে ঘুরতে আসা মানিক মিয়া নামের এক ব্যক্তি জানান, বন্যায় আর ঘর বন্দি থাকা ভালো লাগছিল না তাই এখানে আসা। তবে এখানে এসে দেখি সামাজিক দূরত্ব মানা হচ্ছে না।

শারীরিক দূরত্ব ও মাস্ক সম্পর্কে মারুফ আহমেদ নামের একজন জানান, জানা ছিলো না এ রকম একজনের সঙ্গে আরেক জনের গায়ে লেগে যাচ্ছে। প্রায় অধিকাংশ মানুষের মুখে মাস্ক নেই। এ ব্যাপারে প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করছি।

পিআর