দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাককে পেছন থেকে ধাক্কা, নিহত ১

আগের সংবাদ

ফের ডিম দিয়েছে সিতেশবাবুর অজগর

পরের সংবাদ

মাছটি কি তাহলে সুনামির অশনি সংকেত!

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: জুলাই ২৪, ২০২০ , ৩:৪২ অপরাহ্ণ

তাহলে কি আবারও প্রবল কম্পন আর সুনামিতে ধ্বংস হয়ে যাওয়ার সময় আসন্ন? আবার ২০১১ এর সুনামির স্মৃতি মনে করিয়ে দিল মেক্সিকো উপকূলে ধরা পড়া দৈত্যাকার মাছ। এই মাছটি বিশ্বজুড়ে ‘ভূমিকম্পের মাছ’ বলে পরিচিত। মাছটি ধরা পড়ার এরপরই এই আশংকা শুরু হয়েছে স্থানীয় বাসিন্দাদের।

১৩ ফুট লম্বা সামুদ্রিক মাছটি আসলে ওর ফিশ। মুখটা অনেকটা হাঙরের মতো। গায়ের রং রুপালি। উপকূলে খুব একটা দেখা যায় না। আর সে কারণেই বোধহয় সমুদ্র সৈকতে এর আবির্ভাব অশনি সংকেত বলে ধরে নেওয়া হয়। যেমন, ২০১১ সালের মার্চ মাসে জাপানে ভয়াবহ কম্পন আর সুনামির আগে নাকি সৈকতে দেখা গিয়েছিল ওর ফিশ। তারপর থেকেই তার নাম হয়ে যায় ভূমিকম্পের মাছ।

ভূমিকম্পের মাছ

রিখটার স্কেলে ৯ মাত্রা ভূমিকম্প আর ৪০ মিটার উচ্চতার সুনামির বিপর্যয় সামলাতে অনেকটা সময় লেগেছিল জাপানের। ৯ বছর পর ফের সেই স্মৃতিই উসকে দিল মেক্সিকো উপকূলে ধরা পড়া ওর ফিশ।

ফার্নান্দো কেভালিন ও ডেভিড জাবেদোরস্কি নামে দুই যুবক মাছটিকে আবিষ্কার করে সৈকতের একেবারে ধারে। ছনি তোলার পর মাছটিকে সমুদ্রে ছেড়ে দেন ফার্নান্দো ও ডেভিড। সেই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হতেই ছড়িয়েছে ত্রাস।

এসএইচ