মিডিয়া ফেলোশিপ পেলেন ভোরের কাগজের সেঁজুতি

আগের সংবাদ

সপরিবারে করোনায় আক্রান্ত চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি

পরের সংবাদ

সিবলির হাফ সেঞ্চুরিতে লিড পেল ইংল্যান্ড

খেলা ডেস্ক

প্রকাশিত হয়েছে: জুলাই ১১, ২০২০ , ৯:৩৬ অপরাহ্ণ

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম ইনিংসে তাদের পেসারদের বিপক্ষে ধরাশয়ী হয় ইংল্যান্ড। তারা মাত্র ২০৪ রানে অলআউট হয়ে যায়। জবাবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ প্রথম ইনিংসে বড় সংগ্রহের আভাস দিয়েও সবগুলো উইকেট হারিয়ে ৩১৮ রান করতে সমর্থ হয়। ফলে প্রথম ইনিংসে ইংলিশদের চেয়ে ১১৪ রানের লিড পেয়ে যায় তারা। ক্যারিবিয়ানদের সেই ১১৪ রানের লিডের পাল্টা জবাব দিচ্ছে থ্রি লায়ন্সরা। আর পাল্টা জবাবটা বেশ ভালোভাবেই দিচ্ছে তারা। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ৬৫.৫ ওভারে ইংল্যান্ড তাদের দ্বিতীয় ইনিংসে ৩ উইকেট হারিয়ে ১৫২ রান তুলে ফেলেছে। ফলে তারা ওয়েস্ট ইন্ডিজের চেয়ে ৩৮ রানে লিড পেয়েছে। ডোম সিবলির হাফ সেঞ্চুরি ইংল্যান্ডকে লিড পেতে সহায়তা করেছে। ১৬৪ বল মোকাবিলা করে ৫০ রান করেন সিবলি।

রানের জন্য প্রান্ত বদল করছেন ইংল্যান্ডের ররি বার্নস ও ডোম সিবলি।

এদিকে এর আগে সিরিজের প্রথম ম্যাচটিতে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ক্যারিবিয়ানদের পেসের তোপে পড়ে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়েছিল ইংল্যান্ড। তারা পেসের তোপে পড়লেও ওয়েস্ট ইন্ডিজকে প্রথমদিকে নিজেদের পেস দিয়ে কুপোকাত করতে পারেনি। ওয়েস্ট ইন্ডিজের দুই ব্যাটসম্যান ব্রাথওয়েট ও ডরিচ ২ জনই তুলে নেন হাফসেঞ্চুরি। দলের হয়ে তারা দুজনে যথাক্রমে ৬৫ ও ৬১ রান করেন। তাদের হাফসেঞ্চুরির ওপর ভর করে বড় সংগ্রহের দিকেই এগুচ্ছিল তারা। কিন্তু তৃতীয় দিনের শেষ দিকে এসে বল দিয়ে ঝলক দেখান ইংলিশ অধিনায়ক বেন স্টোকস। তিনি মাত্র ৪৯ রান খরচায় ৪টি উইকেট তুলে নিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের রানের চাকা বেশিদূর আগানোর আগেই থামিয়ে দেন।

অন্যদিকে ইংলিশদের হয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩টি উইকেট তুলে নেন আরেক পেসার জেমস অ্যান্ডারসন। তৃতীয়দিন ওয়েস্ট ইন্ডিজকে অল আউট করে দিয়ে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে নেমে পড়ে ইংল্যান্ড। আর তৃতীয় দিনটা দুই ওপেনার ররি বার্নস ও ডোম সিবলি ১৫ রান তুলে শেষ করেন। এরপর ম্যাচের চতুর্থদিন আবার খেলতে নামেন তারা। আর দুজন মিলে দলে রানের চাকাকে বেশ ভালোভাবেই এগিয়ে নিতে থাকেন। তবে দলীয় ৭২ রানের মাথায় ভাঙে তাদের জুটি। এ সময় ব্যক্তিগত ৪২ রান করে রোস্টন চেজের বলে ক্যাচ আউটের শিকার হয়ে সাজঘরে ফিরে যান ওপেনার ররি বার্নস। তিনি ৪২ রান করতে ১০৪টি বল খেলেন। আরেক ওপেনার ডোম সিবলিও ররি বার্নসের মতো ধীরে ধীরে খেলতে থাকেন।

ইংল্যান্ডের ওপেনার ররি বার্নসকে সাজঘরে ফিরিয়ে সতীর্থদের সঙ্গে রোস্টন চেজের উল্লাস।

আপাত দৃষ্টিতে মনে হচ্ছে দুই দলের মধ্যে প্রথম টেস্ট ম্যাচটি ড্রই হতে যাচ্ছে। আর যদি ম্যাচটি ড্র না হয় তাহলে জয়ের সম্ভাবনার ভারী দিকটা থাকবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের দিকে। কারণ এখন পর্যন্ত এই ম্যাচটিতে ব্যাটিং ও বোলিংয়ের দিক দিয়ে এগিয়ে আছে তারাই। তবে ইংল্যান্ড যদি ধীরে খেলার নীতিতে চলছে তাতে করে মনে হচ্ছে তারা ম্যাচটি ড্রই করতে চায়। যেহেতু প্রথম ইনিংসে তারা সুবিধা করতে পারেনি ফলে তাদের পক্ষে এই ম্যাচটিতে জয় পাওয়া অনেক কঠিন ব্যাপার হবে। তবে ড্র করাটাও সহজ হবে না তাদের জন্য। কারণ তাদের যদি ম্যাচটি ড্র করতে হয় তাহলে ম্যাচটির পঞ্চম দিনের মধ্যাহ্ন বিরতি পর্যন্ত ব্যাট করতে হবে।

এমএইচ