মৌলভীবাজারে করোনাযোদ্ধাদের মতবিনিময়

আগের সংবাদ

সাহারা খাতুনের মরদেহ ঢাকার পথে

পরের সংবাদ

অসহায়দের পাশে দাঁড়ালেন অভিনেত্রী স্বস্তিকা

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: জুলাই ১০, ২০২০ , ১০:১৬ অপরাহ্ণ

উত্তর ২৪ পরগনার হলদা। মাত্র দিন দুয়েক আগেই এই গ্রামের সমস্ত যোগাযোগ ব্যবস্থা মেরামত হয়েছে। আমফান পরবর্তী একটা সময়ে গলা অবধি জলে সাঁতরে এসে ত্রাণ নিয়ে যেতে হয়েছে এখানকার বাসিন্দাদের। আর মাস দুয়েক আগে সাইক্লোনে ছাড়খাড় হয়ে যাওয়া সেই দুর্গম এলাকাতেই বৃষ্টি মাথায় করে পৌঁছে গেলেন টলিউড অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়।

ঝড় চলে গেলেও তাণ্ডবের প্রভাবে এখনও ভুগছে প্রান্তিক অঞ্চলের মানুষেরা। একে করোনা আবহ, উপরন্তু গোদের উপর বিষফোঁড়ার মতো সুপার সাইক্লোন আমফান। যে ঝড়ে কেউ মাথা গোজার ঠাঁই হারিয়ে এক টুকরো ত্রিপল-প্লাস্টিকের আশায় সাহায্যের জন্য অপেক্ষা করছেন। আবার কেউ বা খিদের জ্বালায় দিশাহীন। একরাশ চিন্তা নিয়ে অসহায় মুখেদের ভীড়। এমন কঠিন পরিস্থিতিতেই আমফান বিধ্বস্ত হলদায় গেলেন স্বস্তিকা।

শিশুদের হাতে শিক্ষা উপকরণ তুলে দিলেন অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়।

বইখাতা, পেন-পেন্সিল, খাদ্যসামগ্রীর পাশাপাশি মহিলাদের স্বাস্থ্যসুরক্ষার কথা মাথায় রেখে স্যানিটারি ন্যাপকিনও দান করলেন অভিনেত্রী। বাড়ি বাড়ি ঘুরে সেখানকার বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বললেন তাঁদের সমস্যা নিয়ে। একেবারে আপনজনের মতোই। টলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রীকে এতটা কাছ থেকে পেয়ে হলদার বাসিন্দারাও উচ্ছ্বসিত।

উল্লেখ্য, ‘সন্ধি’ নামের এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে ৭ তারিখ হলদায় গিয়েছিলেন স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়। আমফান বিধ্বস্ত সেই গ্রামেরই কচিকাঁচাদের সঙ্গে এদিন অনেকটা সময় কাটালেন একেবারে নিজের মতো করেই। ত্রিপলের ছায়ায় বাচ্চাদের নিয়ে রাত কাটানো। সেখানেই রান্না-বাড়া, খাওয়া-দাওয়া। কেউ কেউ তো আবার সেই একটি ত্রিপলের ছাউনিতেই চার-পাঁচ সদস্যের গোটা পরিবার নিয়ে রয়েছেন, গ্রামবাসীদের সঙ্গে সবটাই ঘুরে দেখলেন টলিউড অভিনেত্রী।

এমএইচ