২ নৌকা আটকে রাখলো বিএসএফ

আগের সংবাদ

দুর্নীতির বীজ মূলোৎপাটন করা যথেষ্ট কঠিন

পরের সংবাদ

টেকনোলজিস্টদের আগামী বুধবার কর্মবিরতি ঘোষণা

প্রকাশিত: জুলাই ৯, ২০২০ , ৬:৪১ অপরাহ্ণ আপডেট: জুলাই ৯, ২০২০ , ৬:৪১ অপরাহ্ণ

বাংলাদেশ মেডিকেল টেকনোলজিস্ট অ্যাসোসিয়েশন (বিএমটিএ)এর আহবানে ৬ দফা দাবি আদায়ে বৃহস্পতিবার সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১ টা পর্যন্ত জরুরি সেবা কার্যক্রম অব্যাহত দেশের সব সরকারি হাসপাতাল ও চিকিৎসা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে কর্মরত মেডিকেল টেকনোলজিস্টরা দুই ঘণ্টা কর্মবিরতির কর্মসূচি পালন করেছেন।

কর্মবিরতির কর্মসূচি পালনকালে তারা স্ব-স্ব প্রতিষ্ঠানের সামনে সমবেত হয়ে দাবির সপক্ষে সমাবেশ করেন।

সমাবেশে বক্তারা বলেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের উদাসীনতার কারনে মেডিকেল টেকনোলজিস্টরা কর্মবিরতির কর্মসূচি পালন করতে বাধ্য হয়েছে। তারা অভিযোগ করে বলেন গত ৩ মাস যাবৎ বয়সোত্তীর্ণ মেডিকেল টেকনোলজিস্টদের বয়স প্রমার্জনা সাপেক্ষে ২০ হাজার বেকার মেডিকেল টেকনোলজিস্টকে নির্বাহী আদেশে এডহক ভিত্তিতে অবিলম্বে নিয়োগ প্রদান ও মেডিকেল টেকনোলজিস্টদের নতুন পদ সৃষ্টি, চাকুরির শুরুতে মেডিকেল টেকনোলজিস্টদের দশম গ্রেডে উন্নীতকরণ, ডিপ্লোমা মেডিকেল এডুকেশন বোর্ড চালুকরণ, স্বেচ্ছাসেবক,অস্থায়ী ও মাস্টাররোল এর মাধ্যমে মেডিকেল টেকনোলজিস্ট পদে নিয়োগ বন্ধকরণ, সুপ্রিমকোর্টের আদেশ এবং প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে গঠিত আন্তঃমন্ত্রণালয় কমিটির সুপারিশ মোতাবেক ওয়ান আমব্রেলা কনসেপ্ট বাস্তবায়ন এবং কারিগরি শিক্ষাবোর্ড সংশ্লিষ্টদের মামলার চূড়ান্ত নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত কারিগরি শিক্ষাবোর্ড থেকে পাশকৃতদের স্বাস্থ্য বিভাগে নিয়োগ না দেওয়া, অস্বচ্ছ প্রক্রিয়ায় ১৮৩ জন মেডিকেল টেকনোলজিস্টের স্থায়ী নিয়োগের সুপারিশের আলোকে ১৪৫ জন নিয়োগ পাওয়া মেডিকেল টেকনোলজিস্টের নিয়োগপত্র বাতিলকরণ এবং অনিয়মের সাথে জড়িতদের শাস্তির দাবিতে শান্তিপূর্ণ উপায়ে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করা সত্ত্বেও স্বাস্থ্য বিভাগ দাবি বাস্তবায়নে কোন উদ্যোগ গ্রহণ করেন নাই। তারা আরও অভিযোগ করেন দাবি বাস্তবায়নে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর আন্তরিক তো নয়ই, উপরন্তু স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কতিপয় বিতর্কিত সিদ্ধান্তের কারণে মেডিকেল টেকনোলজিস্টরা ক্ষুব্ধ হয়ে কর্মবিরতি কর্মসূচি দিতে বাধ্য হয়েছে। তারা অবিলম্বে এসব দাবি বাস্তবায়নের আহবান জানান।

কর্মবিরতির কর্মসূচি পালনকালে হাসপাতালগুলোতে প্যাথলজিক্যাল, ব্লাড ব্যাংক, রেডিওলজিক্যাল, ফিজিওথেরাপি, ডেন্টাল, রেডিওথেরাপি বিভাগের রোগীদের পরীক্ষানিরীক্ষা ও স্বাভাবিক সেবা কার্যক্রম ব্যহত হয়। করোনা পরীক্ষানিরীক্ষার পিসিআর ল্যাব কর্মবিরতির আওতায় থাকার কারণে রোগীর নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষায় প্রভাব পরলেও সীমিত আকারে জরুরী সেবা চালু ছিল।

কর্মবিরতি সফলভাবে পালন করায় দেশের সকল মেডিকেল টেকনোলজিস্টকে ধন্যবাদ জানিয়ে বিএমটিএ’র সভাপতি আলমাছ আলী খান এবং মহাসচিব মুক্তিযোদ্ধা মোশাররফ হোসেন খান এক বিবৃতিতে বলেন স্বাস্থ্য বিভাগ অবিলম্বে তাদের দাবি বাস্তবায়ন না করলে আগামী বুধবার সকল সরকারি হাসপাতাল, চিকিৎসা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জরুরি সেবা কার্যক্রম অব্যাহত রেখে সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত ৩ ঘন্টার কর্মবিরতির কর্মসূচি পালনের নির্দেশ দেন নেতৃবৃন্দ।

পিআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়