লকডাউনের পর প্রথমবার বাইরে রাতের উচ্ছ্বাস

আগের সংবাদ

করোনাকালে বন্ধু হয়ে উঠেছে প্রকৃতি

পরের সংবাদ

হালদায় অবৈধভাবে মা মাছ শিকার থামছে না

প্রকাশিত: জুলাই ৫, ২০২০ , ১০:৩৫ পূর্বাহ্ণ আপডেট: জুলাই ৫, ২০২০ , ১০:৩৫ পূর্বাহ্ণ

দেশের একমাত্র প্রাকৃতিক মৎস্য প্রজনন কেন্দ্র হিসেবে পরিচিত চট্টগ্রামের হালদা নদীর মাছ ও ডলফিনসহ জলজ প্রাণী রক্ষায় উপজেলা প্রশাসনের অভিযান অব্যাহত আছে। হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল আমিন স্থানীয় প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের নিয়ে মাঝেমধ্যেই অভিযান চালাচ্ছেন। কিন্তু গুটিকয়েক স্বার্থান্বেষী মানুষের কারণে সরকারি-বেসরকারি সব চেষ্টাই ব্যাহত হচ্ছে।

কড়া নজরদারির মধ্যেও গত ১১ জুন হালদা নদীতে বড়শি দিয়ে সাড়ে ১০ কেজি ওজনের কাতলা মাছ শিকার করেন হাটহাজারী উপজেলার ছিপাতলী ইউনিয়নের সাবেক মেম্বার নুরুল হকের ছেলে মোহাম্মদ ইউনুছ ওরফে সোহেল। নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে নদী থেকে মাছ শিকারের দায়ে তাকে ১২ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। একই ব্যক্তি গত ২৭ জুন হালদা নদীতে আবারো বড়শি দিয়ে চার কেজি ওজনের একটি রুই মাছ শিকার করেন।

এ ব্যাপারে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণীবিদ্যা বিভাগের শিক্ষক ও হালদা নদী গবেষক ড. মঞ্জুরুল কিবরিয়া ভোরের কাগজকে বলেন, এ ধরনের ঘটনায় আইনের কঠোর প্রয়োগের বিকল্প নাই। এরা শুধু হালদার নয়, দেশ ও জাতির শত্রু ।

এরইমধ্যে মা মাছসহ বড় মাছ শিকারের পাশাপাশি বেশ কয়েকটি ডলফিনও হত্যা করা হয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে গতকাল শনিবার দুপুরে হালদায় অভিযান পরিচালনা করা হয়। সাত্তার ঘাট থেকে নাজিরহাট পর্যন্ত এ অভিযানে প্রায় তিন হাজার মিটার ঘেরা জাল ও ভাসা জাল জব্দ করা হয়। মা মাছ, ডলফিন ও হালদার জীববৈচিত্র্য রক্ষায় এই অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন।

ডিসি

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়