যৌনহয়রানি থেকে বাঁচতে মেঘনায় ঝাঁপ

আগের সংবাদ

করোনা সংকটে তথ্যপ্রযুক্তি ও যুব সমাজ

পরের সংবাদ

নজরুল ইসলামের ওপর ক্ষোভ ঝাড়লেন ২০ দলের নেতারা

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: জুলাই ৫, ২০২০ , ৭:৪৪ অপরাহ্ণ

বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের সমন্বয়কারী নজরুল ইসলাম খানের প্রতি তাদের ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ করেছেন জোটের নেতারা। করোনা পরিস্থিতি, বাজেট প্রতিক্রিয়া, খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ সব সাম্প্রতি নানা ইস্যুতে ২০ দলকে দূরে রাখার কারনেই নেতারা এই ক্ষোভ প্রকাশ করেন বলে জোটের এক শীর্ষ নেতা জানিয়েছেন।

রবিবার (৫ জুলাই) সকাল ১১টায় জোটের শরিক নেতাদের ভার্চূয়াল বৈঠক শুরু হয়। দুই ঘন্টার অধিক সময় এ বৈঠক চলে। সোমবার (৬ জুলাই) দুপুর ১২টায় নজরুল ইসলাম খান এ বিষয়ে গণমাধ্যমে সংবাদ সম্মেলন করবেন বলে জানান বিএনিপর চেয়ারপারসনের প্রেস উইং সদস্য শায়রুল কবির খান।

বৈঠক শেষে জোটের এক শীর্ষ নেতা বলেন, বৈঠকে নজরুল ইসলাম খানের ঊপর ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ করা হয়েছে। করোনার মধ্যে তিনিও বিচলিত হয়ে এক নাম সর্বস্ব দলের জোট নেতাকে দায়িত্ব দিয়েছিলেন। যিনি বাজেট প্রতিক্রিয়ার বিবৃতিতে কয়েকজন শীর্ষ নেতার নাম বাদ দেন এবং পরে গণমাধ্যমে পাঠানো হয়েছিলো, বিষয়টি নিয়ে আজ বৈঠকে একজন নেতা তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে জোটের ঐক্য ধরে রাখার স্বার্থে নজরুল ইসলামের প্রতি আহ্বান করেছেন।

তিনি বলেন, জোটের ঐক্যের স্বার্থে নজরুল ইসলাম খানকে এ বিষয়ে বোঝানো হয়েছে, তার মগজ স্যানিটাইজ করা হয়েছে। আশা করা যায় তিনি ভবিষ্যতে আর ওই ধরণের বিভ্রান্তিতে পড়বেন না। জোট নেতাদের তোপের মুখে নজরুল ইসরাম খান একেবারেই চুপ ছিলেন বলে ঐ নেতা জানান।

এছাড়াও জোটের প্রধান বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সাথে দেখা করার বিষয়ে শরিক নেতাদের পক্ষ থেকে জাতীয় দলের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট সৈয়দ এহসনুল হুদা বৈঠকে কুলে ধরেন বলেন, সবাই না হলেও ড.অলি আহমেদসহ সিনিয়র কয়েকজনের সাথে ম্যাডামের দেখা হওয়া দরকার। খালেদা জিয়ার মুক্তির পর নাগরিক ঐক্যের মাহামুদুর রহমান মান্না দেখা করতে পারলেও ২০ দলের শীর্ষ নেতারা খালেদা জিয়ার সাথে দেখা করতে না পারার ব্যাপারেও নজরুল ইসলাম খানের প্রতি বিরাগভাজন হন শরিক নেতারা।

সূত্র আরো জানায়, শাহাদৎ হোসেন সেলিম থাকায় বৈঠকে ঢুকেই বের হয়ে যান লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির একাংশের সভাপতি অলি আহমেদ। জানতে চাইলে শাহাদৎ হোসেন সেলিম বলেন, গতানুগতিক বৈঠক হয়েছে আমাদের। বাজেট ও করোনা পরিিস্থ নিযে আমাদের আলোচনা হয়েছে।

এমএইচ