প্রেমের কারণে পারিবারিক হত্যার শিকার কিশোরী লাইজু

আগের সংবাদ

চীনে আরেক ভাইরাসের সন্ধান, মহামারির আশঙ্কা

পরের সংবাদ

বগুড়ায় বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: জুন ৩০, ২০২০ , ১:৫২ অপরাহ্ণ

টানা বর্ষণ ও উজানের ঢলে বগুড়ার সারিয়াকান্দি, সোনাতলা ও ধুনট উপজেলায় সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি হয়েছে। যমুনা নদীর পানি মঙ্গলবার (৩0 জুন) সকাল ৯টায় বিপদসীমার ৬৬সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

যমুনার অববাহিকায় চর এবং আশপাশে গ্রামগুলো জলাবদ্ধ হয়ে পড়েছে। তলিয়ে গেছে ফসলের ক্ষেত। বন্যাকবলিত লোকজন অনেকে পাকা স্কুল, সড়ক, বাঁধ ও উঁচু স্থানে আশ্রয় নিতে শুরু করেছে। দেখা দিয়েছে গো-খাদ্যের সংকট। যমুনা নদীর পানি বৃদ্ধির ফলে জেলার তিনটি উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নের ৯০টি গ্রামের ১৫ হাজার ৪০টি পরিবার ও প্রায় ৫০ হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে।

এদিকে করোনার কারণে টানা তিন মাস ঘরে বন্দি লোকজনের ওপর চরম দুর্ভোগ নিয়ে এসেছে বন্যা। হাতে কাজ না থাকায় বিপাকে পড়েছে বিপুলসংখ্যক লোক। সেই সঙ্গে চরাঞ্চলে টিউবওয়েল (অগভীর নলকূপ) ও পয়োনিষ্কাশনের স্থান পানিতে তলিয়ে থাকায় সংকটে পড়েছে বানভাসি পরিবারের সদস্যরা, বিশেষ করে নারীরা।

এ ছাড়া বৃষ্টির কারণে জ্বালানি নষ্ট হওয়ায় রান্না করতে পারছে না ভুক্তভোগী মানুষ। হঠাৎ পানি বৃদ্ধিতে চরম ঝুঁকিতে রয়েছে শিশু, বৃদ্ধ ও প্রতিবন্ধীরা। এ ছাড়া অন্তঃসত্ত্বা নারীদের স্বাস্থ্যসেবা ব্যাহত হচ্ছে। বৃষ্টি ও বন্যার ফলে ঝুঁকিতে রয়েছে পানি উন্নয়ন বোর্ডের সদ্য মেরামত করা বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ।

বগুড়া জেলা ত্রাণ ও পূনর্বাসন কর্মকর্তা আজাহার আলী বলেন, বন্যাদুর্গত এলাকার জন্য সরকারি ভাবে ২৫ মেট্রিক টন চাল ও ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এরমধ্যে ধুনট উপজেলায় ৫ মেট্রিক টন চাল ও ৪১ হাজার ৫০০ টাকা। সারিয়াকান্দি উপজেলায় ১৫ মেট্রিক টন চাল ও ১ লাখ ২৫ হাজার টাকা। সোনাতলা উপজেলায় ৫ মেট্রিক টন চাল ও ৮৩ হাজার ৫০০ টাকা।

ডিসি