পাটকল শ্রমিকদের আন্দোলন স্থগিত

আগের সংবাদ

তিনটি বিলে রাষ্ট্রপতির সম্মতি

পরের সংবাদ

সারা দেশে মানববন্ধন

এমসিকিউ উত্তির্ণদের গেজেট করে সনদ প্রদানের দাবি

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: জুন ৩০, ২০২০ , ১০:১০ অপরাহ্ণ

এমসিকিউ পরীক্ষায় উত্তির্ণদের লিখিত পরীক্ষা ও ভাইবা মৌকুফ করে আইন পেশার সনদ প্রদানের দাবি জানিয়েছে ২০১৭ ও ২০২০ সালে এমসিকিউ পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষানবিশ আইনজীবীরা।

মঙ্গলবার (৩০ জুন) সম্মিলিত শিক্ষানবিশ আইনজীবী সংগ্রাম পরিষদের ব্যানারে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বার কাউন্সিল বরাবরে এমন দাবি জানায় তারা। এদিকে মঙ্গলবার একই দাবিতে দেশের বিভিন্ন স্থানে শিক্ষানবিশ আইনজীবীরা মানববন্ধন করেছে।

ডিআরইউতে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির আহ্বায়ক সুমনা আক্তার লিলি। এ সময় সদস্য সচিব আইনুল ইসলাম বিশাল, সদস্য ব্যারিস্টার মঞ্জুর মোর্শেদ তন্ময়, আজিজুর রহমান, ব্যারিস্টার মেহেদী হাসান, মো. আলী ইউসুফ, মো. রায়হান প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

লিখিত বক্তব্যে লিলি বলেন, দীর্ঘ প্রায় তিন বছর বার কাউন্সিল কর্তৃক এনরোলমেন্ট পরীক্ষা সম্পন্ন না হওয়ায় আমরা মানবেতর জীবনযাপন করছি। উচ্চ আদালতের নির্দেশ থাকা সত্ত্বেও ২০১৮ ও ২০১৯ সালে কোনো এনরোলমেন্ট পরীক্ষা না হওয়ায় শিক্ষানবিশ আইনজীবীরা গত বছর ১১ নভেম্বর সুপ্রীমকোর্ট প্রাঙ্গণে পরীক্ষার দাবিতে আমরা আমরণ অনশন করি। এরপর চলতি বছর ২৮ ফেব্রুয়ারী আইনজীবী তালিকাভুক্তকরণ পরীক্ষার প্রিলিমিনারি সম্পন্ন হয়। কিন্তু বর্তমানে বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাসের কারনে লিখিত পরীক্ষা অনির্দিষ্ট সময়ের জন্য অনিশ্চিত হয়ে যায়।

লিখিত বক্তব্যে আরো বলা হয়, এর আগে শিক্ষানবিশ আইনজীবীদের দুর্দশা তুলে ধরে লিখিত পরীক্ষা ও ভাইবা মওকুফ করে সনদ প্রদানের জন্য বার কাউন্সিল ও আইন মন্ত্রণালয়ে স্বারকলিপি দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু প্রায় এক মাসেও কোন দৃশ্যমান অগ্রগতি দেখা যায়নি। বর্তমানে অনিশ্চিত ভবিষ্যতের সামনে আমরা দাড়িয়ে আছি। করোনা আক্রান্তের ঝুকি নিয়েও বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করতে বাধ্য হচ্ছি। লিখিত বক্তব্যে করোনা পরিস্থিতি ও শিক্ষানবিশ আইনজীবীদের বিষয় মানবিকভাবে বিবেচনা করে লিখিত পরীক্ষা মওকুফ করে অথবা লিখিত ও ভাইভা উভয় পরীক্ষা মওকুফ করে ২০১৭ ও ২০২০ সালে এমসিকিউ উত্তীর্ণদের গেজেট প্রকাশ করে সনদের প্রদানের দাবি জানানো হয়েছে।

এমএইচ