স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে মেডিকেল টেকনোলজিস্টদের অবস্থান ধর্মঘট

আগের সংবাদ

মাস্ক-পিপিই দুর্নীতি, তিন সংস্থায় দুদকের চিঠি

পরের সংবাদ

চুরির দায়ে মা-ছেলে গ্রেপ্তার

কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি

প্রকাশিত হয়েছে: জুন ২১, ২০২০ , ৫:৫৭ অপরাহ্ণ

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলা শহরের বৃহৎ কম্পিউটার বিক্রয় প্রতিষ্ঠান শিপন কম্পিউটার দোকানে দুর্ধর্ষ চুরির সঙ্গে জড়িত জনি মন্ডল (২১) ও তার মা  ময়না বেগম (৪২) কে গ্রেপ্তার করেছে কালীগঞ্জ থানা পুলিশ। তাদের কাছ থেকে ৫ টি মোবাইল ফোন ও ৭৪ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়েছে।

শনিবার (২০) জুন দিনগত রাতে কালীগঞ্জ পৌর এলাকার নিশ্চিন্তপুর গ্রামের একটি ভাড়া বাড়ি থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। তারা উভয়ই পৌরসভার নিশ্চিন্তপুর গ্রামে বসবাস করে। পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাদের বাড়ি থেকে চুরি হওয়া টাকার মধ্যে নগত ৭৪ হাজার টাকা, বিভিন্ন ধরনের ৫টি স্মার্ট ফোন, একটি চাকু, তালা ভাঙার কাজে ব্যবহৃত লোহার রড ও ২টি টর্চ লাইট উদ্ধার করেছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কালীগঞ্জ থানার এসআই শেক সুজাত আলী জানান, ঘটনার পর পুলিশ দোকানের সিসি ক্যামেরার রেকর্ড সংগ্রহ ও মোবাইল ট্রাকিং করে তদন্ত শুরু করে। মূলত মোবাইল ট্রাকিংয়ের সূত্র ধরে, পুলিশ ২০ জুন দিনগত রাতে শহরের নিশ্চিন্তপুর গ্রামের জহুরুল ইসলামের ভাড়া বাড়িতে অবস্থানের সময় জনিকে গ্রেপ্তার করে। পুলিশ তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে চুরির কথা স্বীকার করে বলেন, টাকা ও মোবাইল বাড়িতে আছে। ওই রাতেই অভিযান চালিয়ে তার মা ময়না বেগমের কাছ থেকে নগদ টাকা ও মোবাইল উদ্ধার করে।

প্রতিষ্ঠানের মালিক মাজহারুল ইসলাম শিপন জানান, ৮ জুন দিনগত রাতে কালীগঞ্জ শহরের মেইন বাসস্ট্যান্ডের লস্কার টাওয়ারের দ্বিতীয় তলায় অবস্থিত আমার কম্পিউটার প্রতিষ্ঠানে ৯টি তালা ভেঙে এক দুঃসাহসিক চুরি সংঘটিত হয়। চোরেরা নগদ ১ লাখ ৯২ হাজার টাকা ও ১৩টি বিভিন্ন ধরনের স্মার্টফোন চুরি করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় কালীগঞ্জ থানায় অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামি করে একটি চুরি মামলা দায়ের করি।

কালীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহা. মাহফুজুর রহমান মিয়া ভোরের কাগজকে জানান, শহরের বৃহৎ শিপন কম্পিউটার দোকানে দুর্ধর্ষ চুরির সঙ্গে জড়িত জনি ও তার মা ময়না বেগমকে মোবাইল ফোন ট্রাকিং এর মাধ্যমে উদঘাটন করা সম্ভব হয়েছে। তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

এসআর