করোনা আক্রান্ত নগরে বৃষ্টির বিড়ম্বনা

আগের সংবাদ

কিট উদ্ভাবক দলের সদস্য স্ত্রীসহ করোনায় আক্রান্ত

পরের সংবাদ

ব্র্যাকের গবেষণা প্রতিবেদন

৯৫ শতাংশ কৃষকই কোনো সাহায্য পাননি

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: জুন ৪, ২০২০ , ১০:৪৫ অপরাহ্ণ

করোনা মহামারির এ সময়ে গেল দেড় মাসে কৃষকের আয় উপার্জন মারাত্মকভাবে কমে গেছে। গোটা দেশে এ কারণে কৃষকের ক্ষতি হয়েছে ৫৬ হাজার ৫৩৬ কোটি টাকার ওপরে। তবে এই সময়ের মধ্যে ৯৫ শতাংশ কৃষক কোনো ধরনের সাহায্য পাননি। সরকারি বা বেসরকারি কোনো পর্যায় থেকেই তারা সহযোগিতা পাননি। নিজেদের ভবিষ্যৎ নিয়ে তারা অনিশ্চয়তার মধ্যে রয়েছেন।

বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ব্র্যাকের দুটি গবেষণা প্রতিবেদনে এমন তথ্য উঠে এসেছে। কারোনাকালে বাজার ব্যবস্থাপনায় কী ধরনের সমস্যা হয়েছে এবং কৃষকের অবস্থা কী তা জানার জন্য আলাদা দুটি গবেষণা করে প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে।

প্রতিবেদন তৈরির জন্য লকডাউনের শুরু থেকে মে মাসের মাঝামাঝি পর্যন্ত ৬৪ জেলার ১৫৮১ কৃষকের সঙ্গে কথা বলেছেন ব্র্যাকের প্রতিনিধিরা। তাতে ৮২ শতাংশ কৃষক মনে করেন এ সমস্যা খুব দ্রুত সমাধান হবে না। সমস্যা দীর্ঘ হলে পরবর্তী বছরের উৎপাদনের জন্য ৪১ ভাগ কৃষক ঋণ নেবেন। ১৮ শতাংশ কৃষক সঞ্চয় ও সম্পদ ভেঙে জীবন ধারণ করবেন। ১৮ শতাংশ জানেন না তারা কী করবেন। ১৪ শতাংশ কৃষকের অন্য ব্যবসা বা আয়ের পথ রয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৪ জুন) ব্র্যাক আয়োজিত ‘ইমপ্যাক্ট অব কোভিড-১৯ প্যান্ডেমিক অন এগ্রিকালচার অ্যান্ড ইমপ্লিকেশন্স ফর ফুড সিকিউরিটি’ শীর্ষক ভার্চুয়াল আলোচনায় এ প্রতিবেদন তুলে ধরা হয়।

প্রতিবেদন তুলে ধরে গবেষক নাহারিন সারওয়ার বলেন, প্রতি তিনজন কৃষকের একজন বলেছেন আয় কমেছে। পোল্ট্রি খামারিদের তিনজনের দুজনই জানিয়েছেন আয় কমেছে। অর্থের পরিমাণে সর্বোচ্চ ক্ষতি হয়েছে মাছ চাষিদের। কৃষি ও খামারিদের গড়ে আয় কমেছে দুই লাখ সাত হাজার ৯৭৬ টাকা। দেশের সব কৃষক ও খামারকে বিবেচনায় আনলে পুরো দেশে দেড় মাসে কৃষকের আয় কমেছে ৫৬ হাজার ৫৩৬ কোটি ৬৮ লাখ টাকা।

ব্র্যাকের জ্যেষ্ঠ পরিচালক কে এ এম মোরশেদের সঞ্চালনায় ভার্চুয়াল আলোচনায় অংশ নেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি এমএ সাত্তার মণ্ডল, প্রাণ গ্রুপ-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মো. ইলিয়াস মৃধা, এসিআই এগ্রো বিজনেসের সিইও এফ এইচ আনসারি, ব্র্যাক ডেইরি অ্যান্ড ফুড এন্টারপ্রাইজেসের পরিচালক মোহাম্মদ আনসুর রহমান প্রমুখ।

এনএম