আরও ১২৫৬ জনকে মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি

আগের সংবাদ

বিক্ষোভ দমনে সেনা মোতায়েনের হুমকি

পরের সংবাদ

ভেজাল স্যানিটাইজারের কারখানায় ৫ লাখ টাকা জরিমানা

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: জুন ২, ২০২০ , ৯:২২ অপরাহ্ণ

রেজা ফুড প্রডাক্ট নামে নামকরণ করা হলেও এ মহামারী পরিস্থিতিকে কাজ লাগিয়ে অনুমতি ছাড়াই মানহীন ও ভেজাল হ্যান্ড সোপ এবং স্যানিটাইজার তৈরি করছিল কারখানাটি। রেজিস্ট্রেশনের জন্য শিল্পমন্ত্রণালয়ের অনুমতির আবেদন করেই রেক্স নামেই করোনা সুরক্ষা সামগ্রী হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি শুরু করে তারা। যদিও এসব তৈরীতে বৈজ্ঞানিক পন্থার কিছুই অনুস্মরণ করা হচ্ছিলো না। আবার অর্ডার পেলে অন্য কোম্পানীকেও বানিয়ে দেয়া হতো তাদের সরবরাহকৃত লেবেল লাগিয়ে।

রাজধানীর খিলগাঁও থানাধীন গোড়ান এলাকায় মানহীন ও ভেজাল হ্যান্ড সোপ এবং স্যানিটাইজার কারখানায় অভিযান শেষে ভোরের কাগজকে এসব তথ্য জানান র‌্যাব সদরদপ্তরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ বসু। সোমবার বেলা সাড়ে ১১টা থেকে দুপুর ২ টা পর্যন্ত র‌্যাব-৩ এর সহায়তায় এ অভিযান চালানো হয়। সে সময় মানহীন ও ভেজাল হ্যান্ড সোপ এবং স্যানিটাইজার তৈরীর অভিযোগে রেজা ফুড প্রডাক্ট নামে কারখানার মালিক মো. রেজাউর রহমানকে ৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয় ও বিপুল পরিমাণ ভেজাল স্যানিটাইজার জব্দ করে ধ্বংস করা হয়। এছাড়া সিলগালা করা হয় কারখানাটি।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ বলেন, স্যানিটাইজারের গায়ের লেবেলে শতভাগ জীবাণুনাশক লেখে বিক্রি করছিল তারা। যদিও কোনো কিছুই শত্ভাগ জীবাণু মুক্ত করতে পারে না। আর জীণুনাশক বানাতে গেলে আইসো প্রোফাইল অ্যালকোহল ও ইথানল ব্যবহারের বিষয়েও প্রতিষ্ঠানটির মালিকের কোনো ধারণা নেই। আর এসবে ব্যবহার করার জন্য আনা ক্যামিকেলগুলোও রাখা হয়েছিল বালতিতে খোলা অবস্থায়। আসলে তা শুধু দেখানোর জন্য রাখা হয়েছিল বলে ধারণা করছি আমরা। তিনি আরো বলেন, শুধু নিজেই নয় অগ্নিবাস নামে চট্রগ্রামের একটি কোম্পানীকে পাঠানোর জন্য স্যানিটাইজার বানাচ্ছিল প্রতিষ্ঠানটি। তাই এসব নানা অনিয়মের অভিযোগে তাকে সাবধান করে কারখানা সিলগালা ও ৫ লাখ টাকা জরিমাণা করা হয়। ভবিষ্যতেও এ ধরণের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।

পিআর