শিক্ষার্থীদের আত্মহনন প্রবণতা ও অভিভাবকদের সচেতনতা

আগের সংবাদ

খাদ্যশস্যের স্বয়ংসম্পূর্ণতাই আমাদের সাহস জোগাবে

পরের সংবাদ

সাংবাদিকের মামলানা নেয়ার প্রতিবাদে মানববন্ধন

তাহিরপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি

প্রকাশিত হয়েছে: জুন ১, ২০২০ , ৪:৫৬ অপরাহ্ণ

তাহিরপুরে সংঘর্ষের ঘটনার ৭দিন পেড়িয়ে গেলেও আহত সাংবাদিকের মামলা নেয়নি থানা পুলিশ। এঘটনার প্রতিবাদে উপজেলায় কর্মরত সাংবাদিকদের মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্টিত হয়েছে। সোমবার (১জুন) দুপুরে তাহিরপুর উপজেলা প্রেসক্লাবের আয়োজনে উপজেলা পরিষদ চত্ত্বরে এক মানববন্ধন কর্মসূচি ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্টিত হয়। প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তরা বলেন,উপজেলার শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়নের বালিয়াঘাটা সড়কপাড়া গ্রামে ২৫ মে উপজেলা প্রেসক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক ও মানবজমিন তাহিরপুর উপজেলা প্রতিনিধি এমএ রাজ্জাক ও একই গ্রামের আব্দুর রশীদের ছেলে এরশাদ আলম বিশু পক্ষদ্বয়ের মধ্যে তুচ্ছ বিষয়কে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষের ঘটনায় উভয় পক্ষের ৪ জন আহত হয়। ঘটনার ৫দিন পর তাহিরপুর থানা পুলিশ এক পক্ষের মামলা নিলেও রহস্য জনক কারনে সাংবাদিক আব্দুর রাজ্জাকের মামলা নেয়নি থানা পুলিশ। মানববন্ধনে বক্তারা সাংবাদিক আব্দুর রাজ্জাকের দায়েরকৃত অভিযোগটি আমলে নিয়ে মামলা রুজ্জু করার দাবি জানান সেই সাথে তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগটি প্রত্যাহারেরও দাবি জানান।
এ বিষয়ে বক্তব্য জানতে তাহিরপুর থানা অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আতিকুর রহমানের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, এ বিষয়ে আমি কোন লিখিত অভিযোগ পাইনি।
সাংবাদিক রাজ্জাক বলেছেন, ঘটনার পরের দিন আমি নিজে বাদী হয়ে অভিযোগ দিয়েছি। ওসি সাহেব আমাকে ফোন করে অভিযোগটিতে আমার পরিবারের অন্য কাউকে বাদী করতে বলেন। পরে আমি আমার বড় ভাই নুরু মিয়াকে বাদী করে পুণঃরায় অভিযোগ দায়ের করি। এখন কেন কি কারণে তিনি অভিযোগ প্রাপ্তির বিষয়টি অস্বীকার করছেন তা আমার বোধগম্য হচ্ছেনা।
প্রতিবাদ সমাবেশে উপস্থি ছিলেন, উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি আমিনুল ইসলাম, সহ সভাপতি বাবরুল হাসান বাবলু, সাধারন সম্পাদক আলম সাব্বির, সাংগঠনিক সম্পাদক কামাল হোসেন, অর্থ সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন শাহ্, সাংবাদিক আবির হাসান মানিক, সামায়ুন কবীর, শফিকুল ইসলাম স্বাধীন, মুবিনুর মিয়া, রোমান আহমেদ তুষা, টাইফুন মিয়া, উজ্জল হাসান, সাকিল হাসান, শাহ আলম প্রমূখ।

ডিসি