দরিদ্রদের পাশে থেকে ঈদ করবেন বাম নেতারা

আগের সংবাদ

সম্প্রীতির বন্ধন সুদৃঢ়ের আহ্বান

পরের সংবাদ

ভোরের কাগজকে সিএমএসডির নতুন পরিচালক

আকাশে চাঁদ উঠলে সবাই দেখতে পারবে

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: মে ২৩, ২০২০ , ২:২৩ অপরাহ্ণ

করোনাকালে এন-৯৫ মাস্কসহ বেশ কয়েকটি কেলেঙ্কারি নিয়ে সমালোচিত হয়ে পড়া কেন্দ্রীয় ঔষুধাগারের (সিএমএসডি) পরিচালক পরিবর্তন করেছে সরকার। বাংলাদেশ জাতীয় ইউনেস্কো কমিশনের ডেপুটি সেক্রেটারি জেনারেল (অতিরিক্ত সচিব) আবু হেনা মোরশেদ জামানকে প্রেষণে সিএমএসডি’র পরিচালক হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

আবু হেনা মোরশেদ জামানকে সিএমএসডির পরিচালক পদে পদায়ন করে শুক্রবার (২২ মে) আদেশ জারি করা হয়। শনিবার (২৩ মে) জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে তা প্রকাশ করা হয়।

প্রতিষ্ঠানটিতে পরিচালকের দায়িত্ব চালিয়ে আসা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ শহীদ উল্লাহকে সেনাবাহিনীতে ফেরাতে তার চাকরি সশস্ত্র বাহিনী বিভাগে ন্যস্ত করা হয়েছে।

তবে সিএমএসডির পরিচালক পদে পরিবর্তন কেলেঙ্কারির কারণে হয়েছে কি না সে বিষয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে অনানুষ্ঠানিক কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে অনেকেই মনে করছেন, মাস্কসহ নানা কেলেঙ্কারির পরে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় যে তদন্ত কমিটি করেছিল সেই কমিটির প্রতিবেদনের ভিত্তিতেই এই রদবদলের ঘটনা ঘটলো।

সিএমএসডির নব নিযুক্ত পরিচালক আবু হেনা মোরশেদ জামানের কাছে শনিবার ভোরের কাগজের পক্ষ থেকে এ ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে তিনি বলেন, আদেশ দেখতে পেয়েছি। যত দ্রুত পারি যোগদান করব। তিনি আরো বলেন, প্রতিষ্ঠানটি সম্পর্কে বাইরে থেকে অনেক কথা শুনেছি। যোগ দেয়ার পর কাজগুলো বুঝে নিয়ে জনপ্রত্যাশা পূরণের চেষ্টা করবো।

ওই প্রতিষ্ঠানে কোন কাজটিতে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেবেন- এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আগে যোগ দেই, তারপর বাকি কথা। আকাশে চাঁদ উঠলে সবাই দেখতে পাবে। যা কিছুই করি না কেন, সবই জাতি দেখতে পারবে।

দেশের এক ক্রান্তিকালে আপনাকে প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক করা হয়েছে, কাজটিকে আপনি চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছেন কি না-এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সরকারি দায়িত্ব মানেই চ্যালেঞ্জ। তারপরও মহামান্য রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমার ওপর যে দায়িত্ব দিয়েছেন তা যথাসাধ্য পালনের চেষ্টা করব।

অভিযোগ রয়েছে, কেন্দ্রীয় ঔষুধাগারে বড় ধরনের সিন্ডিকেট রয়েছে, তারাই সবকিছু নিয়ন্ত্রণ করেন-এ বিষয়ে আপনার ভূমিকা কী হবে- জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি তো এখনও প্রতিষ্ঠানে যোগ দেইনি। তবু আপনাদের মতো বাইরে থেকে ওখানকার বহু কথা শুনেছি। আমি শুধু বলবো, জনগণের প্রত্যাশা অনুযায়ী, দেশের প্রত্যাশা অনুযায়ী কাজ করবো। আমার জ্ঞান, বুদ্ধি, অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে যা কিছু ভালো মনে হবে সেটাই করার চেষ্টা করবো। যা কিছুই করি না কেন, জনগণকে জানবো।

ওই প্রতিষ্ঠানে এ যাবৎকালে সেনা কর্মকর্তাদের পরিচালক পদে পদায়ন করা হয়ে আসছে- সেক্ষেত্রে আপনি কি প্রথম কোনো কর্মকর্তা জনপ্রশাসন থেকে সেখানে পরিচালক হয়ে যাচ্ছেন-এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমি জানি না।

আবু হেনা মোরশেদ জামান সরকারের অতিরিক্ত সচিব পদে বাংলাদেশ জাতীয় ইউনেস্কো কমিশনে কর্মরত ছিলেন। এর আগে তিনি রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর পরিচালক এবং নরসিংদীর জেলা প্রশাসক ছিলেন। তিনি রাজধানীর অন্যতম শীর্ষ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের পরিচালনা পর্ষদেরও সভাপতি।

অভিজিৎ/এনএম