একদিন

আগের সংবাদ

মহান শিক্ষাগুরুর প্রয়াণ

পরের সংবাদ

তামিমের শো’তে যা বললেন উইলিয়ামসন

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: মে ২১, ২০২০ , ১০:৪৯ অপরাহ্ণ

তামিমের লাইভ শো’তে অতিথি হয়ে এসেছিলেন কিউই অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। তাদের আলাপচারিতায় উঠে আসে বিভিন্ন প্রসঙ্গ। তন্মধ্যে যমজ ভাইয়ের গল্প শোনান উইলিয়ামসন, ভবিষ্যতে বিপিএলে খেলার আগ্রহ প্রকাশ করেন। আড্ডার একপর্যায়ে আলোচনার বিষয়বস্তু হয়ে আসেন নিল ওয়াগনার। আর বর্তমান আইসিসির টেস্ট বোলারদের র‌্যাঙ্কিয়ে ২ নম্বরে থাকা ওয়াগনার কতটা ভয়ঙ্কর সেই বর্ণনায় দেন তামিম।

করোনা ভাইরাসের কারণে ঘরে বসে অবসর সময় কাটানো তামিম ইকবাল বেশ কয়েকদিন ধরেই দেশি-বিদেশি ক্রিকেটারদের নিয়ে লাইভ আড্ডায় মেতেছেন। আজ বৃহস্পতিবার (২১ মে) সে আড্ডায় আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কিউই অধিনায়ক। সেখানেই লাইভের শুরুতে তামিমের সঙ্গে কুশল বিনিময়ের সময় ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের খবর নেন এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান।

উইলিয়ামসন বলেন, ‘আশা করি বাংলাদেশের মানুষ করোনা থেকে নিজেদের এড়াতে পারছে। আবার শুনলাম একটি ঘূর্ণিঝড় নাকি আঘাত হেনেছে বাংলাদেশে। আশা করি, তোমরা সবাই সুস্থ ও ভালো আছ।’

তামিম অবশ্য উইলিয়ামসনকে জানিয়ে দিয়েছেন আম্ফানে বাংলাদেশের তেমন ক্ষতি করতে পারেনি। উইলিয়ামসনকে তামিম বলেন, ‘সাইক্লোনটি ভারতের পশ্চিমবঙ্গে যেভাবে আঘাত হেনেছে, এখানে সেভাবে আঘাত করেনি। আমরা সবাই নিরাপদে এবং সুস্থ আছি।’

আইপিএলে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের হয়ে ২০১৫ সাল থেকে নিয়মিত খেলছেন উইলিয়ামসন। দলটির অধিনায়কও ছিলেন তিনি। খেলেছেন ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগেও (সিপিএল)। খেলতে চান বিপিএলেও। তামিম ইকবালের নিয়মিত অনলাইন আড্ডায় কিউই অধিনায়ক বিপিএলে খেলার আগ্রহের কথা জানান। বিপিএলে খেলার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘খুবই আগ্রহী বিপিএলে খেলার ব্যাপারে। অসাধারণ একটা আসর এটা। সময় বের করতে পারলে অবশ্যই আমি বিপিএল খেলতে চাই।’

লোগান উইলিয়ামসন, নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনের যমজ ভাই। কেনের থেকে মাত্র কয়েক মিনিটের ছোট লোগান। লাইভ শো’তে শোনান সেই ভাইয়ের গল্প। যমজ ভাইয়ের কথা জানিয়ে কেন বলেন, ‘না এলেও আমার মতো ক্রিকেট খেলে না। তবে আমরা একসঙ্গে থাকলে প্রায়ই ক্রিকেট খেলি। ও একজন হিসাবরক্ষক হিসাবে কাজ করছে। ও বিশ্ববিদ্যালয়ে গেছে, পড়াশোনা করেছে এছাড়া আরো অনেক কিছু করেছে। ও ক্রিকেট খেলত কিন্তু পেশা হিসেবে নেয়নি। আমরা একসঙ্গে বড় হয়ে ওঠার সময় ক্রিকেট খেলেছি।’

একপর্যায়ে উইলিয়ামসনের উদ্দেশ্যে তামিম বলেন, তোমার সঙ্গে একটা বিষয়ে আমি কথা বলেতে চাই। অবশ্য আমিই প্রথম ব্যাটসম্যান না যে এ বিষয় নিয়ে কথা বলেছে। আসলে নিল ওয়াগনার যেটা করছে এটা কিন্তু ঠিক না। ওকে খেলাটা পছন্দ করি না। এই কথাটা বলেই তামিম হেসে ফেলেন। তার সঙ্গে হাসি থামাতে পারেননি কিউই অধিনায়কও।

তামিম আরো বলেন, ‘আমার এখনো মনে আছে হ্যামিল্টনে ২০১৯ সালে তোমাদের সঙ্গে টেস্ট খেলেছিলাম। তো সে এক নাগাড়ে বাউন্সার দিয়েই যাচ্ছে আর আমি ডাক করে যাচ্ছি। তো কিছুক্ষণ পর ওয়াগনার এসে আমাকে বলল, ‘তুমি কি আরো ২ দিন ডাক করার জন্য প্রস্তুত? তোমার হ্যামস্ট্রিং কি ২ দিন ধরে ডাক করার জন্য যথেষ্ট শক্তিশালী?’

তামিম পরবর্তী সময় উইলিয়ামসনকে প্রশ্ন করেন তো আসলে সে কি চিন্তা করে এমন কৌশলে বল করে? জবাবে কিউই অধিনায়ক বলেন, ‘আসলে আমি নিজেও জানি না ও আসলে কি চিন্তা করে। দেখ ও কিন্তু খুব লম্বা বোলার নয় কিন্তু ওর ফিটনেস দুর্দান্ত। ওয়াগনার সহজে ক্লান্ত হয় না, দেখ ওর মানসিকতা তোমাকে বলেছে ২ দিন ডাক করতে প্রস্তুত কিনা। অধিনায়ক হিসেবে এমন বোলার পাওয়াটা সত্যিই খুব ভাগ্যের ব্যাপার।

২০১৯ সালে বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংসে ৫ উইকেট, দ্বিতীয় ইনিংসে ২ উইকেট নিয়েছিলেন ওয়াগনার। আর দ্বিতীয় টেস্টে আরো ভয়ঙ্কর হয়ে বাংলাদেশ দলের ওপর হামলে পড়েছিল ওয়াগনার। দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম ইনিংসে ৪ উইকেট এবং দ্বিতীয় ইনিংসে ৫ উইকেট। দুই টেস্টে সর্বমোট ১৬ উইকেট নেন ওয়াগনার।

ওদিকে ২৩ মে তামিমের শেষ লাইভ আড্ডায় মাশরাফি, মাহমুদুল্লাহ ও মুশফিকের সঙ্গে থাকার কথা ছিল সাকিবেরও। কিন্তু তামিম বৃহস্পতিবার জানান, ব্যক্তিগত ব্যস্ততা থাকায় ২৩ মের সবশেষ লাইভ অনুষ্ঠানে থাকছেন না সাকিব।

উইলিয়ামসনের সঙ্গে আড্ডা শেষে তামিম বলেন, ‘আমাদের শেষ পর্ব হবে শনিবার। সবাই একটি কথা বলছিলেন যে সাকিব কেন থাকছেন না। আমি বিষয়টি পরিষ্কার করতে চাই। তার সঙ্গে ৭/৮ দিন আগে যোগাযোগ করেছিলাম। আমি চেয়েছিলাম ৫ জন মিলে শো করতে। কিন্তু ব্যক্তিগত কিছু কারণে সাকিব যোগ দিতে পারছে না। এটি নিয়ে বেশি আলোচনা করার দরকার নেই। মানুষের ব্যক্তিগত কাজ থাকতেই পারে। তবে আমরা বাকি ৪ জন থাকছি। আমরা বাকিদের কাছে কৃতজ্ঞ যে তারা রাজি হয়েছে। আমরা ২৩ তারিখ শেষ পর্বটি করব। আশা করি, আপনারা আমাদের সঙ্গে থাকবেন।’