আমফান: পশ্চিমবঙ্গ-ওডিশ্যা প্রদেশে ভারী বর্ষণ

আগের সংবাদ

ঝুঁকি-বঞ্চনার মধ্যেও হাসি মুখে সেবা দিতে চান

পরের সংবাদ

থাকেন সিঙ্গাপুর, মন পড়ে থাকে আক্কেলপুর…

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: মে ১৯, ২০২০ , ১১:৩৬ অপরাহ্ণ

করোনা মহামারীর মধ্যে মানবতার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত আমাদের মুগ্ধ করছে। অনেক ক্ষেত্রে শিখতে পারছি আমাদেরই চারপাশের মানুষের কাছ থেকে। বিশেষ করে যাদের পাঠানো রেমিটেন্সে আমাদের প্রবৃদ্ধি বাড়ে, সমৃদ্ধির পথে তরতর করে এগিয়ে যায় দেশ- তাদের অবদান আমরা কোনোভাবেই ভুলতে পারি না।

এমনি এক প্রবাসী জহুরুল ইসলাম। বাড়ি তার জয়পুরহাট জেলার আক্কেলপুর নীচাবাজার। থাকেন সিঙ্গাপুরে। করোনা মহামারির মধ্যে তার মন সব সময়ই নিজ এলাকার মানুষের জন্য কাঁদে। নিজ এলাকার এই হৃদয়বাণ ব্যক্তিকে নিয়ে ফেসবুকে লিখেছেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক, জাতীয় সংসদের হুইপ জয়পুরহাট-২ আসনের (কালাই, ক্ষেতলাল, আক্কেলপুর) সংসদ সদস্য আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন।

জনাব জহুরুল ইসলাম, বাড়ি আক্কেলপুর নীচাবাজার। থাকেন সিঙ্গাপুর, কিন্তু মন পড়ে আছে আক্কেলপুর।

আমার সাথে পরিচয় ছিল না। করোনা শুরুর পর আমাদের উদ্যোগ জানতে পেরে আমাকে ফোন করে টেস্টিং কিট, মাস্ক, পিপিইসহ বিভিন্ন সামগ্রী পাঠানোর আগ্রহ প্রকাশ করেন। আমি তাকে জানাই, বাংলাদেশে কিট দিয়ে এখোনো টেস্ট সিস্টেম চালু হয় নি। চায়না থেকে পাঠানো মেধাবী ছাত্র মিজানুর রহমানের কিটগুলো এখোনো ব্যবহার করতে পারি নি। সম্ভব হলে অন্যান্য সামগ্রী পাঠিয়ে সহযোগিতা করুন।

তিনি তার সাধ্যমত বিভিন্ন সামগ্রী পাঠিয়েছেন; যা ইতিপূর্বে বিতরণ হয়েছে। আবার তিনি ফোন করে গোপীনাথপুর সেফ অতিথিশালার জন্য তার ভাই জনাব সানা মাস্টারের মাধ্যমে নগদ ১৫ হাজার টাকা পাঠিয়েছেন।

ভালো থাকবেন প্রবাসী জহুরুল ভাই, ভালো থেকো সৈকত।

আজ তাঁর পাঠানো টাকার সঙ্গে আমার ব্যক্তিগত সহকারী জনাব এবিএম ইমরুল হাসান সৈকত তার বেতনের টাকা যোগ করে ২৮ জন নতুন করোনা রোগীর জন্য হরলিক্স, খেজুর, বিস্কিট, ভাপ নেয়ার জন্য প্রয়োজনীয় মসল্লা, সাবান, ৬ বছরের নতুন আক্রান্ত শিশু অতিথির জন্য দুধ, ফল ইত্যাদি উপহার প্রদান করা হয়েছে।

ভালো থাকুক আমাদের করোনা আক্রান্ত অতিথিবৃন্দ। ভালো থাকবেন প্রবাসী জহুরুল ভাই, ভালো থেকো সৈকত।

এনএম