রাষ্ট্রদূতদের জবাবদিহিতা বাড়াতে নতুন উদ্যোগ

আগের সংবাদ

সন্ত্রাসীদের পক্ষেই সম্ভব বৌদ্ধ বিহারে আগুন দেয়া

পরের সংবাদ

ম্যাজিস্ট্রেট দেখে উধাও ক্রেতা-বিক্রেতা

ইয়াহইয়া নকিব

প্রকাশিত হয়েছে: মে ১৮, ২০২০ , ৭:২৮ অপরাহ্ণ

বিকেলে মালিবাগের মৌচাকের মার্কেটগুলোতে দেদারছে চলছে ক্রয়-বিক্রয়। মৌচাক মার্কেটের পাশের লিলি প্লাজায় পাঞ্জাবী ক্রয়ের ধুম। মার্কেটের অবস্থা দেখে বুঝার উপায় নেই বাংলাদেশে আজ করোনা ভাইরাসে সর্বোচ্চ শনাক্ত ও মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। বিকিলের ব্যস্ত মার্কেটে হঠাৎ ছুটোছুটি দেখা গেল। কাছে গিয়ে দেখা গেল একজন নারী ম্যাজিট্রেট দোকনদারকে জেরা করছেন।

ততক্ষণে ভোরের কাগজ লাইভ টিম লাইভ শুরু করে দেয়। বোঝার বাকি ছিল না নির্দিষ্ট সময়ের পর সরকারি নির্দেশ অমান্য করে দোকান খোলা রেখে বেচা-বিক্রি অব্যাহত রাখায় দোকানিদের ভ্রাম্যমান বসিয়ে জরিমানা করা হচ্ছে। তবে ম্যাজিট্রেট দেখার পর মার্কেটের অধিকাংশ দোকানে মুহুর্তের মধ্যে শাটার নেমে গেল। লাইট অফ করে কিছু দোকান না বন্ধ করেই অনেক মালিক লাপাত্তা। তবে ঢাকা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিট্রেট ছাড় দিতে নারাজ। পুলিশ সদস্যদের সহায়তা তাৎক্ষণিক ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন।

অবৈধভাবে নির্ধারিত সময়ের পড়েও দোকান খোলা রাখায় সহকারী কমিশনার মাহনাজ হোসেন ফারিবা ৪টি দোকানের ৩ জন মালিককে জরিমানা করেন। প্রথম একটি দোকান মালিককে ৫ হাজার পরবর্তীতে আরেকটি দোকান মালিককে ৩ হাজার টাকা জরিমানা করেন। এসময় তিনি জরিমানা করলে মার্কেটের সকল দোকান সতর্ক হয়ে যাবে বলে মন্তব্য করেন। সবশেষ একটি দোকানকে অনুরোধের মুখে আড়াই হাজার টাকা জরিমান করা হয়। তিনটি মামলায় মোট সাড়ে দশ হাজার টাকা আদায় করা হয়।

এ সময় দোকান মালিকরা তাদের দোষ স্বীকার করে সামনে আরো সতর্ক হয়ে ব্যবসা পরিচালনা করার প্রতিশ্রুতি দেন। অন্যদিকে সরকারি নির্দেশ প্রতিপালনে ও সচেতনতা সৃষ্টির জন্য প্রতিদিন মার্কেটগুলোতে ভ্রাম্যমান অভিযান পরিচালিত হচ্ছে বলে জানান অভিযানের নেতৃত্বে থাকা এ নারী ম্যাজিট্রেট।

লাইভ দেখতে ক্লিক করুন

মার্কেটে ভ্রাম্যমাণ আদালত

Gepostet von Bhorerkagoj am Montag, 18. Mai 2020