ভেন্টিলেটরের আগুনে পুড়ে ছাই ৪ করোনারোগী

আগের সংবাদ
অঙ্কুশ ও তার কুকুর

লকডাউনে কুকুরের সঙ্গে এ কী করলেন অঙ্কুশ (ভিডিও)

পরের সংবাদ

চীনাদের যৌনতায় বিকৃত পা!

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: মে ১৩, ২০২০ , ৬:১০ অপরাহ্ণ

চীনা সমাজ আর সংস্কৃতি একদিকে যেমন ঐতিহাসিক, তেমনি বড় অদ্ভুত আর বিচিত্রও। এর মধ্যে সবচেয়ে বিস্ময়কর পদ্মের মতো পায়ের প্রথা। যা যেকোরো কাছেই অমানবিক ঠেকবে। অথচ সেই অমানবিক প্রথাই যুগ যুগ ধরে জনপ্রিয় হয়ে আছে।

এককালে চীনের ধনী-গরীব নির্বিশেষে অনেক নারীকেই তাদের পা শক্ত করে বাঁধতে উৎসাহ দেয়া হতো। লক্ষ্য ছিলো পায়ের পাতা যাতে কোনোভাবেই চার ইঞ্চির বেশি বড় না হয়! আর এই উদ্ভট অমানবিক প্রক্রিয়ার কারণে দুমড়ানো-মোচড়ানো যে পা পাওয়া তৈরি হতো, তাকে চীনারা বলতো ‘পদ্মের মতো পা’!

তবে দুঃখজনক আর হতবাক করা কাণ্ড হচ্ছে, প্রাচীন চীনা সমাজে বিকৃত এই পা-ই ছিলো পুরুষদের কাছে সবচেয়ে বেশি যৌনাবেদনময় অঙ্গ। সঙ্গীর সঙ্গে যৌন মিলনের আগে অনেকক্ষণ ধরে কেবল তার সেই পায়েই হাত বুলিয়ে আদর করতো!

শুধু কি তাই কিং রাজবংশের সময়কালে বিকৃত পায়ে আদর করার নির্দেশিকাও প্রকাশ করা হয়েছিলো। যেখানে ভারতের কামসূত্রের মতো চীনা নারীদের সেই বিকৃত পায়ে আদর করার ৪৮টি পদ্ধতির বর্ণনা করা হয়েছিল।

চীনা নারীদের বিকৃত পা-ই যৌনতার কেন্দ্র!

চীনা নারী শরীরের সেই বিকৃত পা-কে শুধু যৌনাবেদনময় অঙ্গ বলাটা ভুল হবে। বরং সবচেয়ে বেশি যৌনাবেদনময় ছিল যার সঙ্গে কিছুরই তুলনা চলে না। ইতিহাস ঘাঁটলে দেখা যায়, চীনের যৌনতা বিষয়ক নানা বইয়ে নারীদের এমন ছবিও দেখা গেছে যেখানে তারা সারা শরীর উন্মুক্ত রাখলেও ঢেকে রেখেছে সেই ‘পদ্মের মতো পা’।

বিকৃত সেই পায়ের বাঁধনগুলো নিয়ে এমনভাবে খেলা করতে দেখা যেতো, যেন এখনই তারা পাগুলো সবার সামনে উন্মুক্ত করবে। তবে শেষ অবধি আকর্ষণ রেখেই দেয়।

এনএম