র‌্যাবের অভিযানে শীর্ষ সন্ত্রাসী বাদশা আটক

আগের সংবাদ

নতুন মৃত্যু ৮, শনাক্ত আরও ৬৩৬

পরের সংবাদ

১৫ হাজার ডলারের অফিসিয়াল চেয়ার

কাগজ প্রতিবেদক

প্রকাশিত হয়েছে: মে ৯, ২০২০ , ২:১৭ অপরাহ্ণ

এরগোনোমিক ওয়ার্ক স্টেশন

অফিসে কম্পিউটারে যারা কাজ করেন তাদের প্রতিদিন বসে থাকতে হয় ঘণ্টার পর ঘণ্টা। কাজের প্রয়োজনে চাইলেও অনেকে উঠতে পারেন না। ঘণ্টার পর ঘণ্টা চেয়ারে বসে থেকে কাজ করলে মেরুদণ্ডসহ বিভিন্ন ব্যথার সৃষ্টি হয়।

অনেকে দীর্ঘ সময় কাজ করতে করতে চেয়ারেই ঘুমিয়ে পড়েন ক্লান্ত শরীরে। যারা টানা কাজ করেন তাদের মধ্যে বেশিরভাগই এমন হয়। তবে নিজের ওয়ার্কস্টেশন বা কাজের জায়গাটা যদি হয় রিল্যাক্সের, তাহলে মন্দ নয়। উন্নত দেশগুলোতে শরীরের জন্য উপযোগী এরগোনোমিক ওয়ার্ক স্টেশন খুব জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

আমেরিকাতে খুব জনপ্রিয়তা পেয়েছে আধুনিক প্রযুক্তির এক ধরনের কম্পিউটার চেয়ার। দীর্ঘ সময় কাজের ক্ষেত্রে শরীরের জন্য উপকারী এ এরগোনোমিক চেয়ার যেমন আধুনিক প্রযুক্তি নির্ভর, তেমনই দামও রয়েছে এর।

২ হাজার ডলার থেকে ১৫ হাজার ডলার পর্যন্ত এসব চেয়ারের দাম, যা কিনা একটি ওয়ার্ক স্টেশন। বেশি দামী চেয়ারগুলো অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপসের মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণ করা হয়। ইচ্ছে হলে বসে বসে কাজ করা যায়। আবার বেশিক্ষণ বসে থাকতে ভালো না লাগলে ফোল্ডিং বিছানার মতো শুয়ে শুয়েও কম্পিউটারে কাজ করা যায়। হাতে কিবোর্ড টাইপ করতে করতে ক্লান্ত হলে রয়েছে এরগোনোমিক পায়ের কিবোর্ড। পায়ের মাধ্যমে কিবোর্ড চেপে টাইপ করা যাবে কম্পিউটারে। মোট কথা একজন মানুষ তার শরীরের যেকোনো কসরতে, শুয়ে কিংবা বসে চাইলেই অফিসের কাজ করতে পারবে।

এমআই